প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

হত্যাকাণ্ড থেকে দায়মুক্তি পেতে রায়হানের স্ত্রীকে বিয়ের প্রস্তাব এসআই আকবরের

   
প্রকাশিত: ১০:৫৫ অপরাহ্ণ, ৪ অক্টোবর ২০২১

সিলেটে বন্দরবাজার ফাঁড়িতে পুলিশের নির্যাতনে নিহত রায়হান আহমদ হত্যা মামলার প্রধান আসামি বরখাস্ত এসআই আকবর নিহতের স্ত্রীকে বিয়ে করার প্রস্তাব দিয়েছেন। এর আগে রায়হানের মায়ের পায়ে ধরে ক্ষমাও চেয়েছিলেন তিনি। রায়হানের মা একটি ফেসবুকে এক লাইভে এ তথ্য জানান। এই ভিডিওটি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়ে যায়।

রায়হানের মা ওই লাইভে আরও জানান, প্রশাসনের এক ব্যক্তিকে দিয়ে আমার বউমাকে আকবর বিয়ে করার প্রস্তাব পাঠায়। পাশাপাশি সে আমার বউমা, নাতি ও আমার ভরণপোষণের দায়িত্ব নেওয়ার কথা জানায়। এ সময় তিনি ঘৃণাভরে প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেন। তিনি জানান, আদালতে আসার পর সে আমার কাছে পা ধরে মাফ চেয়ে সমঝোতার প্রস্তাব দেয়। ক্ষমা চেয়ে আমাদেরকে তার প্রাণভিক্ষা দেয়ার জন্য বলেন। আমাদের যাবতীয় দায়িত্ব তিনি নেবেন বলেও জানান।’

এসময় আকবরসহ অন্য পুলিশ সদস্যরা সালমা বেগমকে বলেন, ‘আমরা ভুল তথ্য পেয়ে রায়হানের মতো ভালো একটি ছেলেকে নির্যাতন করেছি। আমাদের ভুল হয়েছে। আমরা বুঝতে পারিনি। আমাদের ক্ষমা করে দিন।’ এর উত্তরে সালমা বেগম বলেন, ‘আমার ছেলেও তো তোমাদের কাছে সেদিন প্রাণ ভিক্ষা চেয়েছিলো। কিন্তু তোমরা সেদিন পাষণ্ড ছিলে। আমার ছেলের প্রাণ ভিক্ষা দাওনি। তাই আজ আমরাও তোমাদের কোনোভাবেই ক্ষমা করবো না।’

গত বছরের ১১ অক্টোবর রাত ৩টার দিকে সিলেট নগরের আখালিয়ার এলাকার বাসিন্দা রায়হানকে সিলেট কোতোয়ালি থানার বন্দরবাজার ফাঁড়িতে তুলে নিয়ে নির্যাতনের ঘটনায় রায়হানের মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় তার স্ত্রী তাহমিনা আক্তার তান্নি পরদিন হেফাজতে মৃতু্যু (নিবারণ) আইনে মামলা করেন। নৃশংস এই হত্যাকাণ্ড দেশজুড়ে তোলপাড় সৃষ্টি করেছিল। ঘাতক এসআই আকবর প্রতিবেশী দেশ ভারতে পালিয়ে গেলেও শেষরক্ষা হয়নি তার।

নাহিদ/সা.এ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: