বন্ধ হচ্ছে ২ লাখ মোবাইল ফোন

   
প্রকাশিত: ৫:৪৮ অপরাহ্ণ, ৭ অক্টোবর ২০২১

ন্যাশনাল ইকুইপমেন্ট আইডেন্টিটি রেজিস্টার (এনইআইআর) সিস্টেমে নিবন্ধনের জন্য চলতি মাসের প্রথম পাঁচ দিনে দুই লাখের বেশি অবৈধ মোবাইল হ্যান্ডসেট আবেদন করেছে। সেসব মোবাইল ফোনের গ্রাহকদের বার্তা পাঠিয়েছে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি)। বিটিআরসি জানায়, হ্যান্ডসেটগুলো বৈধ করার সপক্ষে প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টস দিতে না পারলে বন্ধ করে দেওয়া হবে সেগুলো। ইতোমধ্যে বেশ কিছু অবৈধ মোবাইল ফোন বন্ধ করা হয়েছে। বর্তমানে ২ লাখের বেশি মোবাইল ফোন বন্ধের তালিকায় রয়েছে। পর্যায়ক্রমে এসব অবৈধ মোবাইল ফোন বন্ধ হয়ে যাবে।

আজ বৃহস্পতিবার (৭ অক্টোবর) বিটিআরসি জানায়, গত ১ অক্টোবর থেকে পাঁচ লাখ ৮৭ হাজার ৭৫৭ টি হ্যান্ডসেট নিবন্ধনের জন্য আবেদন করে। এরমধ্যে বৈধ তিন লাখ ৭৮ হাজার ৭৫৩ এবং অবৈধ দুই লাখ আট হাজার চারটি সেট। বিটিআরসি জানায়, অবৈধ দুই লাখের বেশি মোবাইল সেট ব্যবহারকারীকে বার্তা পাঠানো হয়েছে যাতে তারা প্রয়োজনীয় কাগজপত্র দেখিয়ে নিবন্ধন করে নেয়। অন্যথায় অবৈধ হিসেবে বন্ধ করে দেওয়া হবে এসব হ্যান্ডসেট। অবৈধ মোবাইল ফোন যেন বিক্রি না করে সেজন্য দোকানদারদেরকেও নিদের্শনা দেয়া হয়েছে। কেউ অবৈধ ফোন বিক্রি করলে এবং তা বন্ধ হয়ে গেলে গ্রাহককে সেই টাকা ফেরত দিতে বলা হয়েছে বিটিআরসির পক্ষ থেকে।

এ নির্দেশনা মেনে চলতে দেকানদাররা কথা দিয়েছে বিটিআরসিকে। অবৈধ হ্যান্ডসেট উৎপাদন/আমদানি/ক্রয়/বিক্রয় করলে টেলিযোগাযোগ আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানায় বিটিআরসি। বিটিআরসি এক নির্দেশনায় জানিয়েছে, জাতীয় পরিচিতি ও নিবন্ধিত সিম কার্ডের সঙ্গে ট্যাগিং করে প্রতিটি মোবাইল ফোন নিবন্ধনের মাধ্যমে বিভিন্ন সরকারি সেবা গ্রহণ-প্রদান নিশ্চিত করা, অবৈধভাবে উৎপাদিত/আমদানিকৃত মোবাইল ফোনের ব্যবহার বন্ধ করার মাধ্যমে সরকারের রাজস্ব আহরণ নিশ্চিত করা, ব্যবহৃত মোবাইল ফোনের চুরি ও অবৈধ ব্যবহার রোধ করা এবং জাতীয় নিরাপত্তার স্বার্থে আইন প্রয়োগকারী সংস্থাগুলোকে সহায়তা প্রদানের উদ্দেশে ১ জুলাই এনইআইআর কার্যক্রম শুরু করা হয়েছে।

এর আগে গত শুক্রবার (১ অক্টোবর) সকাল থেকে শনিবার সন্ধ্যা পর্যন্ত ৮১ হাজার ৮৬৮টি অনিবন্ধিত মোবাইল হ্যান্ডসেটকে নেটওয়ার্কে যুক্ত হতে দেয়া হয়নি। পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী বাংলাদেশ টেলিকমিউনিকেশন রেগুলেটরি কমিশন (বিটিআরসি) এসব হ্যান্ডসেট ন্যাশনাল ইকুইপমেন্ট আইডেন্টিটি রেজিস্টারে (এনইআইআর) নিবন্ধিত না থাকায় এ ব্যবস্থা নেয়।

বিটিআরসি জানায়, যারা অনিবন্ধিত হ্যান্ডসেট চালুর চেষ্টা করছেন তারা বিটিআরসির নির্ধারিত ওয়েবসাইটে (neir.btrc.gov.bd) নিবন্ধনের জন্যে ১২ ঘণ্টা সময় পাচ্ছেন। হ্যান্ডসেট নিবন্ধন করতে ফোনের বিক্রয় রসিদ ও ব্যবহারকারীর পাসপোর্ট নম্বর প্রয়োজন হবে।

কোনো ব্যক্তি দেশের বাইরে থেকে শুল্কমুক্ত ২টিসহ মোট আটটি মোবাইল আনার অনুমতি রয়েছে। মোবাইলের মালিকরা KYD ( স্পেস ) ১৫ ডিজিটের আইএমইআই নম্বর লিখে 16002 নম্বরে পাঠিয়ে দিলেই মোবাইলটি নিবন্ধিত কিনা জানা যাবে। ইএমআই নম্বরটি বক্সে লেখা থাকে অথবা *#06# ডায়াল করেও জানা যাবে। এছাড়া দুইদিনে ১ লাখ ৪৫ হাজার হ্যান্ডসেট প্রথমবারের মতো নেটওয়ার্কে সংযুক্ত হয়েছে বলেও জানায় বিটিআরসি।

 

নাঈম/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: