প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

সাহিদুজ্জামান সাহিদ

মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি

বিয়ের প্রলোভনে প্রতারণার অভিযোগ এএসপির বিরুদ্ধে

   
প্রকাশিত: ১১:১৯ অপরাহ্ণ, ২ আগস্ট ২০২২

দশ মাসের প্রেম থেকে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক অতপর বিয়ের প্রলোভনে ৩৩ বছর বয়সী এক নারীর সাথে প্রতারণার অভিযোগ খোদ মাকিনগঞ্জের সিংগাইর সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) রেজাউল হকের বিরুদ্ধে। মঙ্গলবার (২ আগস্ট) বিকেলে পুলিশ সুপার কার্যালয়ে স্ব-শরীরে ভুক্তভোগী নারী পুলিশ সুপারের কাছে এই অভিযোগ করেন। এ বিষয়ে পুলিশ সুপার ভুক্তভোগীকে লিখিত অভিযোগ দেওয়ার পরামর্শ দেন।

ভুক্তভোগী নারী সাংবাদিকদের বলেন, গত বছরের নভেম্বের মাসে আমার ছোট ভাই নিখোঁজ হওয়ায় সিংগাইর থানায় একটি মিসিং ডায়েরি করতে যাই। সেখানে ওসির কক্ষে এএসপি রেজাউলের সঙ্গে পরিচয় হয়। এরপর আমাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। সম্পর্ক আরেকটু গভীর হলে বিয়ে করার প্রতিশ্রুতি দিয়ে তিনি আমার সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন করেন। কখনো ঢাকায়, কখনো তার কার্যালয়ের ওপরের তলার বাসায় আমরা মিলিত হই।

সম্প্রতি ঘটে যাওয়া বিষয়ের প্রসঙ্গ টেনে ওই নারী বলেন, গত রোববার (৩১ জুলাই) রাতে তিনি রেজাউলকে ফোন করেন। তখন অপর প্রান্ত থেকে রেজাউলের স্ত্রী কথা বলা শুরু করেন এবং অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেন। এরপর গতকাল সোমবার সকাল ১০টার দিকে রেজাউলের বাসায় যান তিনি। তখন তার স্ত্রী (রেজাউল) ও কয়েকজন পুলিশ সদস্য তাকে মারধর করেন। আমার বাড়িতে ফোন করে, অভিভাবক এসলে আমাকে ছাড়া হয়।

ক্ষোভ প্রকাশ করে ভুক্তভোগী নারী বলেন, আমি একজন নারী, আমার ভবিষ্যৎ কী? ওর বউ-বাচ্চা থাকা সত্ত্বেও আমার সঙ্গে কেন শারীরিক সম্পর্কে জড়িয়েছে, কেন বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়েছে? বিয়ে না করলে আমি ওর (রেজাউল হক) বিরুদ্ধে মামলা করব।

এ বিষয়ে জানতে সিংগাইর সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার রেজাউল হকের সরকারি মোবাইল নম্বরে কল করা হলে সেটি বন্ধ পাওয়া যায়। মৌখিক অভিযোগের সত্ততা নিশ্চিত করে মানিকগঞ্জের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ গোলাম আজাদ খান বলেন, আমি তাকে লিখিত অভিযোগ দেওয়ার পরামর্শ দিয়েছি। লিখিত অভিযোগ পেলে তদন্ত করা হবে। এরপর ঘটনার সত্যতা পাওয়া গেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সালাউদ্দিন/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: