প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

হাবিবুর রহমান

কুমিল্লা প্রতিনিধি

চিকিৎসক নন, তবু নারী ও শিশু বিশেষজ্ঞ

   
প্রকাশিত: ১০:২২ অপরাহ্ণ, ৮ আগস্ট ২০২২

কুমিল্লায় প্যারামেডিকেল কোর্স করেই শিশু বিশেষজ্ঞ সেজে প্রতারণার দায়ে এক ব্যক্তিকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা ও ১৫ দিনের কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। এ সময় ওই ভুয়া চিকিৎসকের চেম্বার সিলগালা করে দেওয়া হয়।আজ সোমবার (৮ আগস্ট) দুপুরে দাউদকান্দি পৌরসভার বাজারে এই অভিযান পরিচালনা করা হয়।

কারাদণ্ডপ্রাপ্ত ওই ভুয়া চিকিৎসকের নাম বিল্লাল হোসেন সরকার। তিনি  শিশু বিশেষজ্ঞ হিসেবে নিজের তৈরি করা চেম্বারে বসে রোগীকে প্রেসক্রাইব করতেন। ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন দাউদকান্দি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মহিনুল হাসান। তিনি জানান, এসএসসি পাসের পর তিন বছরের প্যারামেডিকেল কোর্স করেছেন বিল্লাল। দীর্ঘদিন ধরে এই কোর্সকে পুঁজি করে সরল মানুষের সঙ্গে প্রতারণা করে আসছিলেন তিনি। আজ সোমবার (৮ আগস্ট)  বিকেলে তার চেম্বারে অভিযান চালানো হয়। এ সময় বিল্লাল বিএমডিসির কোনো নিবন্ধন দেখাতে পারেননি। অথচ চিকিৎসকের পদবি ব্যবহার করে দীর্ঘদিন চিকিৎসা দিয়ে আসছিলেন।

তিনি আরো আরও বলেন, অভিযানে বিল্লালকে আমরা ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করি এবং তা অনাদায়ে ১৫ দিনের কারাদণ্ড দিই। এ সময় তার নিজের তৈরি করা চেম্বার সিলগালা করে দিই। ভবিষ্যতে আর এমন কাজ করবেন না মর্মে মুচলেকা রাখা হয় তার কাছ থেকে।

রেজানুল/সা.এ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: