প্রচ্ছদ / ক্যাম্পাস / বিস্তারিত

প্রক্সি দিতে আসা ঢাবি ছাত্রের ব্যাংক হিসেবে মিলল ২৬ লাখ টাকা

   
প্রকাশিত: ১:২৭ অপরাহ্ণ, ১৪ আগস্ট ২০২২

গুচ্ছভুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক (সম্মান) প্রথম বর্ষের মানবিক বিভাগের (বি ইউনিট) পরীক্ষায় প্রক্সি দিতে এসে আটক হয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞান বিভাগের এক শিক্ষার্থী।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষায় মানবিক বিভাগে সেজান মাহফুজের ভর্তি পরীক্ষায় প্রক্সি দিতে আসা ওই শিক্ষার্থীর নাম আবির। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জসিম উদ্দিন হলের আবাসিক ছাত্র। সমাজবিজ্ঞান বিভাগের থেকে তিনি স্নাতক ও স্নাতকোত্তর শেষ করেছেন বলে প্রাথমিকভাবে জানা গেছে।

শনিবার (১৩ আগস্ট) জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রে সেজান মাহফুজ নামে শিক্ষার্থীর প্রক্সি দিতে আসলে প্রক্টরিয়াল বডির সদস্যরা সন্দেহজনকভাবে আবিরকে আটক করে। এ সময় আবিরের কাছ থেকে মোবাইল ব্যাংকিং প্রতিষ্ঠানের কার্ড উদ্ধার করা হয়। ওই হিসাবে ২৬ লাখ টাকা পাওয়া যায়। যাতে গত দুই দিনে অস্বাভাবিক লেনদেন হয়েছে।

পরে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে তাকে পুলিশে সোপর্দ করে প্রক্টরিয়াল বডি। ভর্তি পরীক্ষায় জালিয়াত চক্রের অংশ হিসেবে তিনি কাজ করছেন বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করছে পুলিশ। আবির জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষায় একজনের প্রক্সি দিয়েছেন বলেও প্রমাণ পাওয়া গেছে। ওই শিক্ষার্থীর সঙ্গে কথোপকথনের প্রমাণও প্রতিবেদকের হাতে এসেছে।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. মোস্তফা কামাল বলেন, এই যুবককে সন্দেহজনকভাবে প্রক্টরিয়াল বডির সদস্যরা আটক করে। তার কাছ থেকে যা উদ্ধার করা হয়েছে, প্রাথমিকভাবে তাতে প্রক্সি দেওয়ার সত্যতা মিলেছে।

তাকে পুলিশের কাছে সোপর্দ করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেন প্রক্টর।

না.হাসান/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: