প্রচ্ছদ / স্পোর্টস / বিস্তারিত

শিরোপা জয়ের লড়াইয়ে মাঠে নামছে বাঘিনীরা

   
প্রকাশিত: ৯:২৮ পূর্বাহ্ণ, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২২

ছবি: সংগৃহীত

সাফ নারী ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে নেপালের মুখোমুখি হচ্ছে বাংলাদেশ। প্রথমবারের মতো চ্যাম্পিয়ন হওয়ার লক্ষ্য নিয়ে সোমবার (১৯ সেপ্টেম্বর) মাঠে নামছে বাংলাদেশ। নেপালের দশরথ রঙ্গশালা স্টেডিয়ামে বিকাল সোয়া পাঁচটায় মুখোমুখি হবে দু’দল। টুর্নামেন্টের ইতিহাসে এই প্রথম ভারতবিহীন ফাইনাল অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

দক্ষিণ এশিয়ার নারী ফুটবলের শ্রেষ্ঠত্ব অর্জনে শিরোপা জিততে দুটি দলই মুখিয়ে রয়েছে। উভয়ের সামনেই রয়েছে প্রথমবারের মতো সাফ চ্যাম্পিয়ন হওয়ার সুযোগ। এদিকে আসরে উড়ন্ত পারফরমেন্স বাংলাদেশের। এখন পর্যন্ত চার ম্যাচে গোল দিয়েছে ২০টি। বিপরীতে অক্ষত আছে গোলপোস্ট। জমাট রক্ষণের সাথে তীব্র আক্রমণের ফায়দা তুলে হারিয়েছে শক্তিশালী ভারতকেও। এবার নেপালকে হারিয়ে অধরা শিরোপা জয়ের হুঙ্কার অধিনায়ক সাবিনার।

সাবিনা বলেছেন, আমাদের এখানে খেলার অভিজ্ঞতা আছে। স্বাগতিক হিসেবে স্টেডিয়ামের গর্জন নেপালের পক্ষেই থাকবে। বাংলাদেশে খেলা হলে সেটি আমাদের পক্ষেই থাকতো। তবে আমাদের যেহেতু অভিজ্ঞতা আছে তাই সমর্থকরা খুব বেশি প্রভাব ফেলবে না।

দ্বিতীয়বারের মতো সাফের ফাইনালে বাংলাদেশ। এর আগে, শিলিগুড়িতে ভারতের কাছে হেরে হৃদয় ভেঙেছিলো সাবিনা-তহুরাদের। এবার শেষটা রাঙাতে মরিয়া কোচ গোলাম রব্বানী ছোটন।

বাংলাদেশ কোচ বলেছেন, বাংলাদেশের মেয়েরা ভালো খেলেই ফাইনালে এসেছে। তারা তাদের সর্বোচ্চ সামর্থ্য দিয়েই নতুন কিছু করার চেষ্টা করবে। এবারের ফাইনালের একটি ভালো দিক হচ্ছে, দুই দলের কেউই আগে শিরোপা জেতেনি। তাই ইতিহাস গড়ার চেষ্টাই করবে বাংলাদেশের মেয়েরা।

ঘরের মাঠে সেরা ছন্দে আছে নেপালও। তিন ম্যাচে ১১ গোল দিয়ে হজম করতে হয়নি একটিও। সেমিফাইনালে ভারতকে হারিয়ে নিশ্চিত করেছে সাফের পঞ্চম ফাইনাল। যদিও আগের চার আসরে খালি হাতেই ফিরতে হয়েছে হিমালয় কন্যাদের। এবার সে ভুল করতে নারাজ দলটির কোচ ও অধিনায়ক। কোচ কুমার থাপা বলেছেন, চ্যাম্পিয়ন হয়ে ইতিহাস গড়তে চাই আমরা। দু’দলের মুখোমুখি লড়াইয়েও এগিয়ে নেপাল। সাফে তিন বারের দেখায় তিনটিতেই জয় দেশটির। সবশেষ ২০১৯ আসরে হারতে হয়েছিলো ৩-০ ব্যবধানে। এবার এক ঢিলে দুই পাখি মারার সুযোগ। নেপালকে হারানোর সাথে শিরোপা জয়ের মঞ্চ হতে পারে বাংলাদেশের জন্য।

 

ইমদাদ/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: