প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

সোহাগ হোসেন

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি

দুধে ভেজাল: জরিমানার টাকা দেয়নি দুগ্ধ সমবায় সমিতির সভাপতি

   
প্রকাশিত: ৫:০৪ অপরাহ্ণ, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২২

দুধে ভেজাল মেশানোর দায়ে জরিমানাকৃত ৫ লাখ টাকা দেয়নি সাতক্ষীরার তালা সদরের জেয়াল গ্রামের প্রশান্ত কুমার। জানা গেছে, চলতি মাসের ৬ সেপ্টেম্বর তালা কেন্দ্রীয় দুগ্ধ সমবায় সমিতির প্রশান্ত ঘোষকে ৯৬৫ কেজি ভেজাল দুধ ও ৩৫০ কেজি জেলিসহ আটক করে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর। পরবর্তীতে একইদিন বিকালে তালা উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে তাকে ৫ লাখ টাকা জরিমানা ও ৬ মাসের কারাদণ্ড প্রদান করেন।

জরিমানা অনাদায়ে আরও ছয় মাসের কারাদণ্ডের রায় ঘোষনা করে জেল হাজতে প্রেরণ করেন প্রশান্ত ঘোষকে। তবে এদিকে, জরিমানা টাকা এখনো দেয়নি বলে জানা গেছে। জরিমানার টাকা না দিয়ে সেই টাকা দিয়ে আপিল করে জামিন করানো হবে এমনটা বাদি প্রশান্ত ঘোষের পরিবারের।

প্রশান্ত ঘোষের জামায় প্রশান্ত জানান, মামলার নকল হাতে পেলে আপিল করা হবে। আর জরিমানার টাকা দিলে তো সাজা মাফ হচ্ছেনা। যদি সাজা মাফ হতো তবে জরিমানার টাকা দেওয়া হতো। তাছাড়া আমাদের আইনজীবি বলেছে, জরিমানার টাকা দেওয়া দরকার নেই। নকল পেলে জামিনের আবেদন করা হবে।

তবে এদিকে তালা সহকারী কমিশনার (ভূমি) রুহুল কুদ্দুস বলছেন ভিন্ন কথা। তিনি জানান, আইন আছে যদি জরিমানার টাকা না দেয় তবে অতিরিক্ত জেল তো খাটতে হবে তাছাড়া নিয়মিত মামলা করে তার সম্পত্তি ক্রোফ করে টাকা আদায় করা হবে। যদি ওনি মারাও যায় তবে তার সম্পত্তি যে যে ভোগ করবে তার কাছ থেকে সরকার জরিমানার ৫ লাখ টাকা নিয়ে নিবে। প্রশান্ত ঘোষকে কে কি বুঝায়ছে জানিনা তবে জরিমানার টাকা দিতেই হবে বিকল্প কোন সুযোগ নেই।

তিনি আরও জানান, নগত টাকা না দেওয়ার কারনে তাতে অতিরিক্ত ৬ মাস জেল খাটতে হবে। তাছাড়া আপিল করলেও জরিমানা টাকা তাকে দিতে হবে।

এদিকে, সাতক্ষীরা জজ কোর্টের আইনজীবি বাসারাতুল্লাহ্ আরঙ্গী বাবলা জানান, আপিল করে নির্দোষ প্রমাণিত হলে সকল জেল জরিমানা মওকুফ হয়ে যাবে।

প্রসঙ্গত, চলতি মাসের ৬ সেপ্টেম্বর সাতক্ষীরার তালার জেয়াল গ্রামে অভিযান পরিচালনা করে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর। এ সময়ে ভেজাল দুধ তৈরীর অভিযোগে প্রশান্ত ঘোষকে আটক করা হয়। পরবর্তীতে তার বাড়ি থেকে জেলি মিশ্রিত ৯৬৫ কেজি দুধ ও ৩৫০ কেজি জেলি গাম উদ্ধার করা হয়। উদ্ধারকৃত দুধ দুইবার পরীক্ষা করে দেখা যায় দুধে আরটিফিশিয়াল গ্লুকোজ রয়েছে। পরবর্তীতে ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রুহুল কুদ্দুস তাকে ৫ লক্ষ টাকা জরিমানা ও ৬ মাসের কারাদণ্ড দেয়। এছাড়া জরিমানা অনাদায়ে ৬ মাসের কারাদণ্ডের রায় ঘোষনা করেছে। দন্ডপ্রাপ্ত প্রশান্ত ঘোষ তিনি বর্তমানে তালা কেন্দ্রীয় দুগ্ধ সমবায় সমিতির সভাপতির দায়িত্বে রয়েছে।

সালাউদ্দিন/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: