প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

দুই লাখ টাকা না দেয়ায় স্ত্রীকে নির্যাতন, বিবস্ত্র ভিডিও ধারণ

   
প্রকাশিত: ২:০৮ অপরাহ্ণ, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২

মাসুম বিল্লাহ্, শরণখোলা (বাগেরহাট) থেকে: বাগেরহাটের শরণখোলায় ব্যাংকে জমানো দুই লাখ টাকা তুলে স্বামীকে না দেয়ার ঘটনায় স্ত্রীকে মারধর করে বিবস্ত্র ভিডিও ধারণ করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল করার হুমকি দিয়ে টানা ২ দিন ঘরে আটকে রাখার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ২০ সেপ্টেম্বর দিবাগত রাতে উপজেলার উত্তর রাজাপুর গ্রামের সুলতান আকনের পুত্র ইয়াসিন আকনের বাড়িতে এ ঘটনাটি ঘটে। ২ দিন পওে প্রতিবেশীর কাছ থেকে মেয়েকে নির্যাতনের ঘটনা জানতে পেরে তাকে উদ্ধার করে ২৩ সেপ্টেম্বর শুক্রবার সন্ধ্যায় শরণখোলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেছে মেয়েটির বাবা।

নির্যাতনের স্বীকার গৃহবধু মীম (১৮) এর পিতা উপজেলার রতিয়া রাজাপুর গ্রামের বাসিন্দা আব্দুল মালেক ব্যাপারী জানায়, উত্তর রাজাপুর গ্রামের সুলতান আকনের পুত্র ইয়াসিন আকনের সাথে গত তিন বছর আগে পরিবারের অমতে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয় মীম। বিয়ের প্রথম দুই বছর সূখে শান্তিতে সংসার করলেও গত এক বছর আগে মীমের নামে ব্যাংকে দুই লাখ টাকা জমা আছে এ খবর জানার পর থেকেই বিভিন্ন অজুহাতে ব্যাংক থেকে টাকা তুলে দেয়ার জন্য চাপ সৃষ্টি করে ইয়াসিন।

এছাড়া বিভিন্ন সময়ে বিদেশ যাবার কথা বলে আরো তিন লাখ টাকা যৌতুক দাবী করে। মীম আমার কাছে ব্যাংক থেকে টাকা তুলে দিতে বলার পরে আমি না দেয়ার কারনে মীমকে শারিরীকভাবে নির্যাতন করে। ঘটনার দুই দিন পর ইয়াসিনের এক প্রতিবেশীর কাছ থেকে নির্যাতনের ঘটনা জানতে পেরে তাকে উদ্ধার হাসপাতালে ভর্তি করি।

শরণখোলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন গৃহবধু মীম জানায়, আমার নামে জমানো টাকা ব্যাংক থেকে তুলে না দেয়ায় গত ২০ সেপ্টেম্বর রাত তিনটার দিকে ঘরের দরজা জানালা বন্ধ করে ইয়াসিন আমাকে লাঠি দিয়ে মারধর শুরু করে। পরে আমাকে বিবস্ত্র করে ভিডিও ধারণ করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল করার হুমকি দিয়ে আমার সাথে অন্য কারো পরকীয়া সম্পর্ক আছে তা বলার জন্য বাধ্য করে। পরে দড়ি দিয়ে ঝুলিয়ে এলোপাথাড়ি পিটিয়ে, লোহার বাটখাড়া দিয়ে পায়ে আঘাত করে ওই বাড়িতে আটকে রাখে।

এ ব্যাপারে ইয়াসিন আকন তার স্ত্রী মীমকে মারধরের ঘটনা স্বীকার করলেও বিবস্ত্র করে ভিডিও ধারণের বিষয়টি অস্বীকার করেন। তবে, তিনি স্ত্রীর বিরুদ্ধে পরকীয়ার অভিযোগ আনেন।

শরণখোলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডেকেল অফিসার ডাক্তার ববি সাহা জানান, তার শরীরের বেশ কিছু যায়গায় আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। বর্তমানে তাকে হাসপাতালে ভর্তি রাখা হয়েছে।

শরণখোলা থানার ডিউটি অফিসার মো. আনিসুজ্জামান জানান, চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে নেয়ার পরামর্শ দেয়া হয়েছে। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সালাউদ্দিন/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: