প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

ফুয়াদ মোহাম্মদ সবুজ

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি

ধানক্ষেত থেকে গরু ধান খাওয়ায় কলেজ ছাত্রকে খুন

   
প্রকাশিত: ৯:৩৩ অপরাহ্ণ, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২

কক্সবাজারের মহেশখালী উপজেলার হোয়ানক ইউনিয়নের জাগিরাঘোনা এলাকায় ধানক্ষেত থেকে গরু ধান খাওয়াকে কেন্দ্র করে হামলার শিকার মহেশখালী কলেজ আরফাত অবশেষে মারা গেছে। ঘটনা গেলো ২৫ সেপ্টেম্বর রবিবারের।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, গত ২৫ সেপ্টেম্বর রবিবার দুপুরে বড় মহেশখালী জাগিরাঘোনাস্থ খালেদা জিয়া সড়কস্থ আলমগীর ফরিদ টেকনিক্যাল কলেজ মাঠের পাশে সকাল বেলা আবুল কাছিমের ধানক্ষেত থেকে মধুযার ডেইল এলাকার সালাম মিয়া ড্রাইভারের কয়েকটি গরু চাষ করা চারা ধান খায়। পরে এ নিয়ে একই দিন দুপুরে বেলা পূনরায় কয়েকটি গরু ধান খাওয়া দেখলে ক্ষেতের মালিক কাছিম দলবদ্ধ গরুর কয়েকটি ছেড়ে দিয়ে একটি গরু গাছে বেধে রাখে। এরপরই বাঁধতে শুরু করে সংঘর্ষ।

আরও জানা যায়, সালামের গরু বেঁধে রাখার অপরাধে গরুর মালিক ছালাম এর স্ত্রী রহিমা ধানক্ষেত এর মালিক কাছিমের ২শিশুকে জুতা পেঠা করে। এ ঘটনায় ২পক্ষের মধ্যে বাকবিতন্ডা সৃষ্টি হলে স্থানীয় লোকজন তাদের মিমাংশার আশ্বাস দেয়। কিন্তু মিমাংসা না হওয়ার আগেই সালাম রাত অনুমান ৯টায় পথিমধ্যে কাছিমকে গতিরোধ করে মারধর করে। পিতা ও চাচাকে মারধরের চিৎকার শুনে পরিবারের লোকজন কাছিমকে উদ্ধার করতে আসে এবং একই সময়ে কাছিমের পরিবারকে ছালাম গংরা পথিমধ্যে আটকিয়ে লাঠিসোঁটা, রড ও ছুরি দিয়ে কলেজ পড়ুয়া কাছিমের ছেলে আরাফাতকে মাথায় ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে মারাত্বক জখম করে। এতে আরও বেশ কয়েকজন আহত হয় বলে জানা যায়।

পরে আহতদের দ্রুত মহেশখালী হাসপাতালে চিকিৎসা করতে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক গুরুত্বর জখমের কারনে উন্নত চিকিৎসার জন্যে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে প্রেরণ করে। পরবর্তীতে কর্তব্যরত চিকিৎসক সেখান থেকেও আরাফাতকে চমেক হাসপাতালে রেফার করে। সবশেষ চট্টগ্রাম শহরের ট্রিটমেন হাসপাতালে ২৭ সেপ্টেম্বর বেলা আড়াইটার দিকে মৃত্যুর কুলে ঢলে পড়ে আরফাত।

নিহত আরাফাত বাংলা়দেশ ছাত্রলীগ বড় মহেশখালী ইউনিয়ন ছাত্রলীগের ০৭ নং ওয়ার্ড় ছাত্রলীগের সভাপতি। মহেশখালী ডিগ্রি কলেজের একাউন্টিং অনার্স প্রথমবর্ষের ছাত্র। নিহত আরাফাত ২ভাই এক বোনের মধ্যে সবার বড়। এ ঘটনায় গতকাল রাতে সালাম মিয়াকে প্রধান আসামী করে একটি মামলা রুজু করে নিহত আরাফাতের মা কহিনুর আকতার। মৃত্যর সংবাদ প্রচার হলে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে। ইতোমধ্যে মহেশখালী থানা পুলিশের একটি টিম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করছে। আগামীকাল জাগিরাঘোনায় জানাযার নামাজ শেষে আরফাতকে স্থানীয় কবরস্থানে দাফন করা হবে বলে জানা গেছে।

সালাউদ্দিন/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: