প্রচ্ছদ / জাতীয় / বিস্তারিত

‘জিয়ার উদ্দেশ্য ছিল বাংলাদেশকে আরেকটি পাকিস্তান বানানো’

   
প্রকাশিত: ৫:৫৭ অপরাহ্ণ, ৭ অক্টোবর ২০২২

ফাইল ছবি

বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের উদ্দেশ্য ছিল বাংলাদেশকে পাকিস্তান রাষ্ট্র বানানো। পাকিস্তানী ভাবধারা থেকে শুরু করে ধর্মভিত্তিক একটি জাতীয়তা তৈরি করা বলেছেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তফা জব্বার। শুক্রবার (৭ আগস্ট) জাতীয় প্রেস ক্লাবে এক আলোচনাসভায় ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তফা জব্বার এ কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন,’একাত্তরে পাকিস্তানের পক্ষে যে শক্তিগুলো বাংলাদেশ থেকে কাজ করেছে তারা চেনা-জানা। পাকিস্তানী সৈন্যরা চলে যাওয়ার পরও তাদের অস্থিত্ব কিন্তু রয়ে গেছে। বঙ্গবন্ধু তাদের সামাল দিতে পেরেছিলেন কিন্তু জিয়াউর রহমান এসে ঠিক তার উল্টো করে দিলেন।’

তিনি আরো বলেন, ‘জিয়ার উদ্দেশ্য ছিল এটিকে একটি পাকিস্তান রাষ্ট্র বানানো সে জন্য তার সকল প্রচেষ্টা ছিল পাকিস্তানী ভাবধারা থেকে শুরু করে ধর্মভিত্তিক একটি জাতীয়তা তৈরি করা। সে জাতীয়তার প্রেক্ষিতে দেশেটিকে আরেকটি পাকিস্তান বানানো। ‘

মোস্তফা জব্বার বলেন, ‘বাংলাদেশের অগ্রগতির কথা বা উন্নতির কথা বলতে হলে শেখ হাসিনার শাসনকালের ১৮ বছর; আর বঙ্গবন্ধুর শাসনকালের সাড়ে তিন বছর। এই সময়টাকে বাদ দিলে হয় না। বাকি সময় ছিল রাষ্ট্রটাকে অন্য একটি রাষ্ট্রে পরিণত করার প্রচেষ্টা। ‘

‘মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়নে মুক্তিযোদ্ধা এবং সন্তান ও প্রজন্মের করণীয় শীর্ষক’ আলোচনাসভার আয়োজন করে বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা মহাজোট। সভার সভাপতিত্ব করেন জাটের সভাপতি মো. মনিরুল হক। মুক্তিযোদ্ধাদের সন্তানদের উদ্দেশ্য সভাপতি বলেন, ‘আগামী দিনে আরো বৃহৎ সংগ্রাম করতে হবে। এতে কোনো সন্দেহ নাই বঙ্গবন্ধু মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য একটি কোটা রেখে গিয়েছিলেন। ‘

মনিরুল হক আরো বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিজেও বলেছিলেন, মুক্তিযোদ্ধাদের কোটা আছে থাকবে। কিন্তু আমরা উনাকে সেভাবে সমথর্ন দিতে ব্যর্থ হয়েছি ফলে কোটা বাতিল হয়ে গেল। আমি আবারো এই কোটা পূর্নবহালের দাবি জানাচ্ছি। কারণ এটি একজন মুক্তিযোদ্ধার সম্মান। ‘

আলোচনাসভায় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সংসদ সদস্য মেজর জেনারেল (অব.) অধ্যাপক মো. নাসির উদ্দিন, জোটের মহাসচিব সালাউদ্দিন আহমেদ সালু ও প্রকৌশলী মো. বেলায়েত হোসেন প্রমুখ।

তুহিন/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: