প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

আবদুল কাদির

গৌরীপুর (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি

অটোরিকশা বিক্রি করতে গিয়ে ধরা পড়লো খুনি

   
প্রকাশিত: ৯:৫৩ অপরাহ্ণ, ৭ অক্টোবর ২০২২

ছবি - প্রতিনিধি

ময়মনসিংহের ত্রিশালে পুকুর থেকে মনির হোসেন (৩৪) নামে এক যুবকের মরদেহ উদ্ধারের ঘটনায় দুই জনকে আটক করেছে পুলিশ। নিহত মনির হোসেন গাজীপুর জেলার শ্রীপুর উপজেলার সবুজবাগ এলাকার আবুল কালামের ছেলে। সে পেশায় অটোরিকশা চালক ছিল।আটককৃতরা হলেন,গাজীপুর জেলার শ্রীপুর উপজেলার সবুজবাগ এলাকার গিয়াস উদ্দিনের ছেলে আলম মিয়া (৩৮) এবং ময়মনসিংহ জেলার নান্দাইল উপজেলার আবুল কাশেমের ছেলে আনোয়ার হোসেন (৩৬)।

শুক্রবার (৭ আগস্ট) নিহতের বাবা আবুল কালাম বাদী হয়ে ত্রিশাল থানায় মামলা দায়ের করেছেন। এর আগে বৃহস্পতিবার (৬ আগস্ট) দ্বিবাগত রাতে ত্রিশাল উপজেলার গফাকুরি এলাকা থেকে তাদের গ্রেপ্তার করে পুলিশ। ত্রিশাল থানার উপ-পরিদর্শক মঞ্জুরুল ইসলাম গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন। গ্রেফতারকৃতদের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের বরাত দিয়ে তিনি বলেন, ঘটনার দিন গত বুধবার বিকালে আসামী আনোয়ার হোসেন ও আলম মিয়া গাজীপুর জেলার শ্রীপুর রেলগেট এলাকা থেকে মনির হোসেনের অটোরিকশা ৮০০ টাকায় ভাড়া করেন ত্রিশালের বালিপাড়া আসার জন্য।

তিনি বলেন, পথিমধ্যে আসামী আনোয়ার ও আলম মিয়া অটোরিকশা চালক মনির হোসেনকে কোকের সাথে নেশাজাতীয় দ্রব্য খাইয়ে দিলে সে অচেতন হয়ে পড়ে। এমতাবস্থায় আলম মিয়া গাড়ী চালিয়ে ত্রিশালের বালিপাড়া পর্যন্ত আসতে রাত ১০ টা বেঁজে যায়। পরে সেখানে অচেতন অবস্থায় মনির হোসেনকে রাস্তার পাশে পুকুরে ফেলে দিয়ে তারা অটোরিকশা নিয়ে চলে যায়। এই ঘটনার পর দিন সকাল ১০ টার দিকে বালিপাড়ায় পুকুরে মরদেহ ভাসতে দেখে স্থানীয়রা থানায় খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়।

পরে ওই দিন সন্ধ্যার পর পুলিশ জানতে পারে যে, ত্রিশালের গফাকুরি এলাকায় একটি অটোরিকশা বিক্রি করতে আসছে একজন। এমন খবরে পুলিশ অভিযান চালিয়ে আনোয়ার হোসেনকে গ্রেপ্তার করে। পরে তার দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে ওই দিন রাতেই আরও আলম মিয়াকে গ্রেফতার করে। এসআই মঞ্জুরুল ইসলাম আরও বলেন, আসামীদের আদালতে নিয়ে এসেছি। কিছুক্ষণের মাঝেই আদালতে তুলা হবে।

আশরাফুল/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: