প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

হাবিবুর রহমান

কুমিল্লা প্রতিনিধি

মোবাইল উদ্ধার করে মালিককে ফেরত দিচ্ছে কুমিল্লার পুলিশ

   
প্রকাশিত: ৪:১৬ অপরাহ্ণ, ১২ অক্টোবর ২০২২

বর্তমানে মোবাইল ফোন সকল শ্রেণী-পেশার মানুষের কাছে অতীব জরুরী এক সামগ্রী। কেউবা সখের বসে কিনেন লক্ষাধিক টাকা মূল্যের দামী মোবাইল ফোন আবার কেউবা প্রয়োজনে ব্যবহার করছেন এই ইলেক্ট্রনিক্স ডিভাইসটি।

অনেক শিক্ষার্থীদের ফোনে রয়েছেন তার ক্লাসের অনেক জরুরী ডকুমেন্ট আবার বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষের ফোনে থাকছে প্রয়োজনীয়, গোপনীয় নানা তথ্য। কিন্তু সহজে বহনযোগ্য টেলিফোনের এই মাধ্যমটি ব্যবহারে রয়েছে বিরাট ঝুঁকিও। কখনও নিজের বে-খেয়ালি বসে হারিয়ে ফেলছেন আবার কখনও চুরি, ছিনতাই ও ডাকাতির কবলে পড়ে খোয়া যাচ্ছে সকলের প্রয়োজনীয় ও সখের মোবাইল ফোনটি। এতে বড় ধরণের আর্থিক ক্ষতির পাশাপাশি জরুরী ও গোপনীয় ডকুমেন্ট নিয়ে পড়ছেন বিপাকে।

খুব গুরুত্বপূর্ণ ঘটনায় খোয়া যাওয়া মোবাইল ফোন ছাড়া বাকি গুলো উদ্ধারে প্রশাসনের কার্যত তেমন তৎপরতা না থাকায় খুব বেশি প্রয়োজন না হলে কেউ আইনের আশ্রয়ও নিতে চান না। যাদের কাছে হারিয়ে যাওয়া মোবাইল ফোনটি খুব বেশি প্রয়োজন তাদের সংখ্যাও কম নয়। প্রতিটি থানায় প্রতিমাসে গড়ে ২০-৩০টি সাধারণ ডায়েরী করছেন খোয়া যাওয়া মোবাইল ফোনের মালিকরা। খোয়া যাওয়া ফোন গুলোর তথ্য যাচাই-বাছাই করে ওই মোবাইল ফোনগুলো দেশের বিভিন্ন প্রান্তে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকায় উদ্ধারেও রয়েছে নানা জটিলতা। যারফলে আইনের আশ্রয় নেওয়া অনেকেই আছেন যারা মাসের পর মাস অপেক্ষা করেও ফিরে পায়নি তার প্রয়োজনীয় ও সখের মোবাইল ফোনটি।

তবে খোয়া যাওয়া ওই মোবাইল ফোনের মালিকদের পাশে মানবিক কারণে দাঁড়িয়েছেন চান্দিনা থানা পুলিশ। প্রতি মাসে যতগুলো ফোন হারিয়ে যাচ্ছে তাদের অর্ধেকেরও বেশি উদ্ধার করে স্ব-স্ব মালিকদের হাতে ফিরে দিচ্ছেন পুলিশ। আর খোয়া যাওয়া ফোনটি হাতে পেয়ে খুশিতে আত্মহারা হচ্ছেন অনেকে। গত এক সপ্তাহে ভোলা, চট্টগ্রাম, ময়মনসিংহ, সিলেটসহ দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ৯টি মোবাইল ফোন উদ্ধার করে মঙ্গলবার (১১ অক্টোবর) দুপুরে স্ব-স্ব মালিকদের কাছে ফেরত দিয়েছেন চান্দিনা থানার অফিসার ইন-চার্জ (ওসি) মো. সাহাবুদ্দীন খাঁন।

তিনি জানান, প্রতি মাসেই চান্দিনা থানায় মোবাইল ফোন হারিয়ে যাওয়ার ঘটনায় ২০-২৫টি সাধারণ ডায়েরী হচ্ছে। সেগুলো উদ্ধারে চান্দিনা থানার বিভিন্ন অফিসারদের সাথে অপারেটর আনোয়ার হোসেন নিপুকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। নিপু হারিয়ে যাওয়া ফোন উদ্ধারে দক্ষ হওয়ায় আমাদের সার্বিক দিক নির্দেশনায় প্রতি মাসেই ১০-১৫টি মোবাইল ফোন উদ্ধার করে স্ব-স্ব মালিকদের কাছে ফেরত দেওয়া হচ্ছে। এ পর্যন্ত প্রায় দুই শতাধিক মোবাইল ফোন উদ্ধার করে চান্দিনা থানা পুলিশ।

সালাউদ্দিন/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: