প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

বড়াইগ্রামের নাজমুল শহরে বেড়াতে গিয়ে লাশ হয়ে ফিরল বাড়িতে

   
প্রকাশিত: ১২:৪৮ অপরাহ্ণ, ১৩ অক্টোবর ২০২২

মোতালেব হোসেন, (বড়াইগ্রাম) নাটোর থেকে: নাটোরের বড়াইগ্রাম উপজেলার নাজমুল হাসান (২৮) নামের এক যুবক শহরে বেড়াতে গিয়ে লাশ হয়ে ফিরলো বাড়িতে। বুধবার রাত আটটার দিকে নাটোর স্টেশন রেলগেট এলাকায় ট্রেনে কাটা পড়ে নিহত হয় সে। নাজমুল উপজেলার পারকোল গ্রামের করম আলীর (মুসা) ছেলে।

নিহতের স্বজনেরা জানান, নাজমুল মঙ্গলবার সকালে খাওয়া-দাওয়া শেষে তার নিজ বাড়ি বড়াইগ্রামের পারকোল গ্রাম থেকে নাটোর সদরের হালশা গ্রামের ভায়রা ভাই তাহের আলীর বাড়িতে বেড়াতে যাওয়ার কথা বলে বের হয়। কিন্তু বুধবার রাত ১২ টার দিকে বাড়িতে ফিরে আসে লাশ হয়ে। নিহদের ভায়রা ভাই তাহের আলী জানান, মঙ্গলবারে এখানে আসার পর, বৃধবার দুপুরে খাওয়া শেষে সে নাটোর শহর বেড়ানোর কথা বলে একা আমার বাড়ি হালসা থেকে বের হয়।

নিহতের আত্মীয় সাবেক ইউপি সদস্য ইসমাইল হোসেন ও সাংবাদিক শেখ তোফাজ্জ্বল হোসাইন জানান, বুধবার রাত আটটার দিকে পার্বতীপুর থেকে খুলনাগামী রকেট এক্সপ্রেস ট্রেন নাটোর রেলওয়ে স্টেশন থেকে ছেড়ে যায়। ট্রেনটি চলে যাওয়ার পর বাফার গোডাউন এলাকায় হোম সিগন্যালের কাছে ট্রেনে কাটা এক যুবকের মরদেহ দেখতে পায় এলাকাবাসী। পরে এলাকাবাসী জিআরপি পুলিশকে খবর দিলে তার মরদেহ উদ্ধার করে নাটোর স্টেশনে নিয়ে যায়। সেখান থেকে নিয়ে এসে বৃহষ্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে জানাজা শেষে তাকে পারকোল গ্রামের কবরস্থানে দাফন করা হয়েছে।

সান্তাহার রেলওয়ে থানার এসআই সোলায়মান হোসেন জানান, সুরোতহাল ও নিহত নাজমুলের নামে পাবনা মানসিক হাসপাতালের চিকিৎসকের দেওয়া প্রেসকিপশন দেখে এবং কোন বাদি না থাকায় আত্মীয়দের আবেদনের প্রেক্ষিতে লাশ ময়না তদন্ত ছাড়াই স্বজনদের কাছে দেয়া হয়।

সালাউদ্দিন/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: