প্রচ্ছদ / বিনোদন / বিস্তারিত

এতই আলোচনায় আসতে ইচ্ছে, আমার কাছে আসেন: সেই উপস্থাপিকাকে জয়

   
প্রকাশিত: ১২:৪৬ অপরাহ্ণ, ১৭ নভেম্বর ২০২২

সম্প্রতি অনুষ্ঠিত হওয়া ‘মিসেস ইউনিভার্স বাংলাদেশ ২০২২’-এর মঞ্চে অভিনেতা ও নির্মাতা মীর সাব্বিরের করা একটি মন্তব্য নিয়ে অভিযোগ তুলেছেন অনুষ্ঠানটির উপস্থাপিকা ইসরাত পায়েল। যা এরই মধ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে।

ভাইরাল হওয়া ভিডিওতে দেখা গেছে, মঞ্চ থেকে নেমে যাচ্ছেন অনুষ্ঠানের বিচারক অভিনেতা মীর সাব্বির। ঠিক তখন পেছন থেকে তাকে ডেকে থামান উপস্থাপিকা ইসরাত পায়েল। ফিরে আসার পর পায়েল বলেন, ‘বরিশালের আঞ্চলিক ভাষায় কোনো নাটকের একটি সংলাপ শুনতে চাই।’ সে সময় মাইক্রোফোন হাতে নিয়ে মীর সাব্বির বলেন, ‘আমার নাটকের সংলাপ মনে থাকে না।’ এরপর খানিকটা সময় নিয়ে এ অভিনেতা বরিশালের আঞ্চলিক ভাষায় পায়েলকে উদ্দেশ্য করে বলেন, ‘এই মাতারি তুমি এইরহম উদলা গাইয়ে দাঁড়ায় আছো কিয়ের লাইগ্যা।’

এ ঘটনার পর বুধবার মীর সাব্বির সেই উপস্থাপিকাকে ছোট বোনের সঙ্গে তুলনা করে নিজের ওয়ালে একটি পোস্ট করতে দেখা যায়। তারপরও যেন এই ইস্যু থামছেই না। তাহলে এর শেষ কোথায়। তবে মিডিয়াঙ্গণের অনেক অভিনেতা-অভিনেত্রী দাঁড়িয়েছেন অভিনেতা মীর সাব্বিরের পাশে। কেউ কেউ আবার এর দায় ছুড়ে দিচ্ছেন সেই উপস্থাপিকাকে। এদিকে উপস্থাপক শাহরিয়ার নাজিম জয় উপস্থাপিকাকে হুঁশিয়ারি দিয়ে ডাকলেন নিজের কাছে এবং প্রতিবাদ করলেন নিজের ফেসবুকে।

এই অভিনেতা, পরিচালক ও উপস্থাপক শাহরিয়ার নাজিম জয় লিখেন, ‘অত্যন্ত আনন্দের সঙ্গে এবং কিছুটা দাবি খাঁটিয়ে অভিনেতা মীর সাব্বিরকে মঞ্চে কিছুটা মজা করার জন্য দাঁড় করালেন উপস্থাপিকা। বরিশালের ভাষায় মীর সাব্বির মজাও করলেন। তারপর সব শেষ। সবাই আনন্দ পেয়ে ঘরে গেল। উপস্থাপিকা বা কোন মাধ্যম এই অনুষ্ঠান থেকে একটি ভাইরাল টপিক বানানোর জন্য মীর সাব্বিরের মজা টাকে পুঁজি করল। সারাদিন মীর সাব্বিরকে নিয়ে ট্রল। উপস্থাপিকা মীর সাব্বিরের বিরুদ্ধে কিছুটা অশালীনভাবেই বিভিন্ন মাধ্যমে বক্তব্য দিয়েই যাচ্ছেন। আপনার যদি এতই আলোচনায় আসতে ইচ্ছে হয় আপনি আমার কাছে আসেন।’

তিনি আরও লিখেন, ‘এই বিষয়ে মীর সাব্বির আপনাকে অনেক দূর নিতে পারবে না। মাত্র দুই তিন দিন। আমার অনুষ্ঠান আপনাকে এক বছর আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে রাখবে। নারীর পোশাক এবং নারীকে সম্মান করা এই বিষয়ে মীর সাব্বির সহ আমাদের জেনারেশনের সকল অভিনেতাদের সম্পূর্ণ শ্রদ্ধা এবং ভালোবাসা আছে। মীর সাব্বিরকে নিয়ে ট্রল করেন অসুবিধা নাই। ভুলেও তাকে অসম্মান করার চেষ্টা করেন না। ট্রল কাকে বলে কত প্রকার ও কী কী বিষয়টা আপনাকে বোঝাতে চাই না। ব্যক্তিগতভাবে আমার মনে হয়েছে মীর সাব্বির যখন বিবাহিত বলেছে তখন আপনার মন খুব খারাপ হয়েছে। তাই আপনি প্রতিশোধ নেবার জন্য মীর সাব্বির সম্পর্কে আজেবাজে কথা বলছেন।’

না.হাসান/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: