প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

জাহাঙ্গীর আলম ভুঁইয়া

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি

সুনামগঞ্জে চারদফা দাবীতে ৩৬ ঘন্টা পরিবহন ধর্মঘট চলছে

   
প্রকাশিত: ৭:১৬ অপরাহ্ণ, ১৮ নভেম্বর ২০২২

সুনামগঞ্জে চার দফা দাবিতে ৩৬ঘন্টা জেলা বাস মিনি বাস পরিবহন মালিক ও শ্রমিক সমিতি ডাকা পরিবহন র্ধমঘট। শুক্রবার (১৮ নভেম্বর) সকাল ৬টা থেকে ১৯ নভেম্বর সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত ৩৬ ঘন্ট এই পরিবহন র্ধমঘট চলবে। এর ফলে সকাল থেকে দুরপল্লার কোনো ধরনের যানবাহন চলাচল করছেনা। ফলে চরম দুর্ভোগের শিকার হয়েছে সিলেট সহ রাজধানী ঢাকা যাওয়া মানুষজন। অনেকেই সকালে বাস ষ্ট্যান্ডে এসে ফিরে গেছেন।

বৃহস্পতিবার সকালে পরিবহন র্ধমঘটের ডাক দেয় জেলা বাস মিনি বাস পরিবহন মালিক শ্রমিক সমিতির সভাপতি মোজাম্মেল হক। এর সত্যত্যা নিশ্চিত করেছে বাস মালিক সমিতি দাবি করেছে, বিএনপির সমাবেশের সঙ্গে তাদের কর্মসূচির কোনো সম্পর্ক নেই।

এদিকে, পরিবহন ধর্মঘটের ঘোষণার কারনে চরম দুর্ভোগের শিকার হচ্ছেন জেলার বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা থেকে ঢাকা যাওয়ার জন্য আসা রফিক মিয়া। তিনি জানান আজ জরুরি কাজে ঢাকা যেতে হবে কিন্তু সকালে এসে শুনি পরিবহন র্ধমঘট চলছে। কিভাবে যাব বুজতে পারছিনা।

বিএনপি নেতাগন বলছেন, শুক্র ও শনিবার সাপ্তাহিক বন্ধের দিনে কেন ধর্মঘট? এটি হচ্ছে তথাকথিত ধর্মঘট। সরকারের নির্দেশ পালন করেছে পরিবহন সেক্টরের নেতারা। কারন আগামী ১৯ নভেম্বর সিলেট নগরের আলিয়া মাদ্রাসা মাঠে নিত্যপণ্যের মূল্যের ঊর্ধ্বগতির প্রতিবাদ ও দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তিসহ বিভিন্ন দাবিতে দেশের বিভিন্ন বিভাগে সমাবেশের ধারাবাহিকতায় বিএনপির বিভাগীয় সমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে।

চার দফা দাবিতে আগামি শুক্র ও শনিবার পরিবহন ধর্মঘটে বাস মালিক সমিতির দাবি গুলো হলো: ১. সুনামগঞ্জ সিলেট সড়কের লামাকাজি সেতু থেকে টোল বন্ধ গ্রহন করা। ২. সুনামগঞ্জে রেজিস্ট্রেশন বিহীন অবৈধভাবে চলা সিএনজি ব্যাটারি চালিত অটোরিক্সা গুলো বন্ধ করা। ৩. সুনামগঞ্জ বাস টার্মিনাল সংস্কার করা। ৪. সুনামগঞ্জ সিলেট সড়কে বিআরটিসি বাস চলাচল বন্ধে দাবী।

জেলা কৃষক দলের আহবায়ক আনিসুল হক জানান, আমাদের সম্মেলনে ব্যাগাত সৃষ্টি করতেই পরিবহন র্ধমঘট সরকারের সিদ্ধান্তে হয়েছে। জনগণ এখন সরকারকে লাল কার্ড দেখাচ্ছে। সরকারের পদত্যাগ ও নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন এই দাবিতে সমাবেশ হচ্ছে। সরকার বাস মালিকদের নিয়ে ধর্মঘট দিয়ে হাস্যকর কাজ করছে। আমরা কোনো বাধাই মানব না আমাদের নেতা কর্মীরা পায়েহেটে হলেও সিলেট বিভাগীয় সমাবেশে পৌঁছে যাবে। অনেকেই সিলেটের পথে আছে আর অনেকেই পৌঁছে গেছে।

এদিকে সুনামগঞ্জ জেলা বিএনপি সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট নুরুল ইসলাম নুরুল জানান, আমাদের পূর্ব ঘোষিত সিলেট বিভাগীয় সমাবেশ কে বাধা সৃষ্টি করার উদ্যোশেই এই পরিবহন র্ধমঘট যাতে করে আমাদের নেতা কর্মীরা সিলেট পৌঁছাতে না পারে। সকল বাধা অতিক্রম করে আমরা সমাবেশে যোগ দিব। ইতিমধ্যে অনেক নেতাকর্মী সিলেট পৌঁছে গেছে। এ পর্যন্ত ছয়টি বিভাগে সমাবেশ সম্পন্ন হয়েছে। সবগুলো বিভাগেই সমাবেশের দুদিন আগে থেকে পরিবহন ধর্মঘট ডাকা হয়। শুক্রবার
কোনো বাধায় আমাদের আটকাতে পারবে না ৮হাজার মটর সাইকেল নিয়ে সিলেট রওনা করব।

সালাউদ্দিন/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: