প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

কামরুজ্জামান জসিম

মোংলা (বাগেরহাট) প্রতিনিধি

মোংলা বন্দরের হারবাড়িয়া এলাকায় ডুবে গেছে পাথর বোঝাই একটি লাইটার জাহাজ

   
প্রকাশিত: ৫:৫০ অপরাহ্ণ, ২৪ নভেম্বর ২০২২

মোংলা বন্দরের হারবাড়িয়া এলাকায় পাথর বোঝাই একটি লাইটার জাহাজ ডুবে গেছে। বন্দরের বহিঃনোঙ্গরে অবস্থানরত একটি বানিজ্যিক জাহাজ থেকে বুধবার মধ্যরাতে ৬০০ মেট্রিক টন পাথর বোঝাই করে খুলনার নোয়াপাড়ার উদ্যেশ্যে ছেড়ে আসে এমভি মাস্টার দিদার নামক লাইটারটি। এর মধ্যে কিছুদূর এলে অন্য একটি লাইটারের সাথে ধাক্কা লেগে তলা ফেটে যায় এমভি মাস্টার দিদারের। মুহুর্তে লাইটারটি ডুবে যায়। তবে ডুবে যাওয়ার আগে পাশে থাকা অন্য একটি লাইটারে ডুবে যাওয়ো লাইটারের ৯ কর্মচারী লাফিয়ে পড়ে জীবন রক্ষা করে।

মোংলা বন্দর কতৃপক্ষের হারবার মাস্টার ক্যাপ্টেন শাহীন মজিদ জানিয়েছেন, লাইটার ডুবির ঘটনায় বন্দর চ্যানেলে জাহাজ চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে। তবে ডুবে যাওয়া লাইটারের পন্য পরিবহনের সার্ভে সনদের মেয়াদ উত্তীর্ণ ছিলো বলে তিনি দাবি করেন। বিষয়টি তদন্ত পূর্বক ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে তিনি জানান।

খুলনা নৌপরিবহন অধিদপ্তরের পরিদর্শক মোঃ রাশেদুল আলম বলেন, ‘আমাদের কাজ রেজিষ্ট্রেশন দেওয়া। ফিটনেসবিহীন ও মেয়াদোত্তীর্ণ যেসব নৌযান নদীতে চলাচল করবে তা দেখার দায়িত্ব বন্দর কর্তৃপক্ষের, বিআইডব্লিউটিএ এবং নৌ পুলিশের।

তিনি বলেন, পাথর নিয়ে যে জাহাজটি ডুবেছে, সেই ‘মাষ্টার দিদার’ নামে জাহজটির বিরুদ্ধে মেয়াদোত্তীর্ণ সার্ভে সনদ ও ফিটনেসবিহীন থাকায় গত মাসে মেরিন কোর্টে মামলা দিয়েছি। এখনও শুনানি হয়নি। এটি এখন পণ্য পরিবহন করে পাথর নিয়ে ডুবছে। তদন্ত কমিটি গঠন করে এর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও জানান রাশেদুল আলম।

শাকিল/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: