প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

জুলফিকার আলী ভূট্টো

নীলফামারী প্রতিনিধি

‘শেখ হাসিনা ছাড়া কোন বাপের বেটা নাই দেশের বর্তমান অবস্থার পরিবর্তন করে’

   
প্রকাশিত: ১১:৪৫ অপরাহ্ণ, ২৮ নভেম্বর ২০২২

নীলফামারী-২ আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য ও সাবেক সাংস্কৃতিক মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নুর বলেছেন, শেখ হাসিনা ছাড়া কোন বাপের বেটা নাই দেশের বর্তমান এই অবস্থার পরিবর্তন করে। যারা আন্দোলন সংগ্রাম করছে বিভাগে বিভাগে সমাবেশ করছেন। আমাদের বিরুদ্ধে অনেক কথা বলতেছেন, টেলিভিশনের টকশোতে আমাদের সমালোচনা করতেছেন তারপরও বলতেছেন সরকার আমাদেরকে কথা বলতে দেয় না। এই সরকারকে হটাতে হবে।

সোমবার সন্ধায় ডোমার উপজেলা আওয়ামী লীগের আয়োজনে শহরের বাটার মোড়ে নীলফামারী জেলার নব-নির্বাচিত জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট মমতাজুল হককে দেয়া সংবর্ধনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি উল্লেখিত কথাগুলো বলেন।তিনি আরো বলেন, বর্তমানে দেশের যে অবস্থা। দেশ যে সংকটের মধ্যদিয়ে চলতেছে গোটা দুনিয়া যেভাবে অগ্রসর হচ্ছে। এই সংকটে যদি সরকার পরিবর্তন হয়। আজকে যদি শেখ হাসিনা প্রধানমন্ত্রী না থাকে কোন বাপের বেটা নাই এই পরিস্থিতির উন্নতি ঘটায়। একমাত্র শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধু কন্যা যিনি মৃত্যুকে মৃত্যুজ্ঞান করেন না। পৃথিবীর কোন শক্তিকে পরোয়া করেন না নিজের স্বার্থ দেখেন না সেই মানুষটি ছাড়া বাংলাদেশের ভাগ্য পরিবর্তন করতে পারেন এমন দ্বিতীয় ব্যাক্তি বাংলাদেশে নাই।

মন্ত্রী এসময় আরো বলেন, তাদের অতীত ইতিহাস দেখেন তারা দীর্ঘ ২১বছর ক্ষমতায় ছিল। আমরা ছিলাম ১৩বছর। তারা সাধারণ মানুষের জন্য কি করেছে। কিছুই করেননি। আর আমাদের আমলে শেখ হাসিনার সময়ে এই ১৩ বছরে অনেক উন্নয়ন হয়েছে। যেভাবে করোনা কালিন সময়ে যেখানে গোটা পৃথিবীতে লক্ষ লক্ষ মারা গেছেন। সেই রকম বিপদ থেকে আমরা উঠে এসেছি। আজ সারা দুনিয়া জুড়ে যে বিপদ দেখা দিয়েছে এই বিপদ সামলানোর সাহস, যোগ্যতা, দক্ষতা বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা ছাড়া আর কারো নাই। যারা পরিবর্তনের কথা বলতেছেন তাদের জিজ্ঞাসা করেন কাকে আপনারা প্রধানমন্ত্রী করবেন। ফখরুল সাহেব প্রধানমন্ত্রী হবেন নাকি তারেক জিয়া। যে হাওয়া ভবন তৈরি করেছিল। তাকে দিয়ে বাংলাদেশটাকে লুটপাটের রাজত্বে পরিনত করবেন এটা আমার প্রশ্ন থাকলো।

ডোমার উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এ্যাডভোকেট মনোয়ার হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সংবর্ধনা সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, নীলফামারী জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও নীলফামারী পৌর মেয়র দেওয়ান কামাল আহমেদ ও নীলফামারী-১ আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা আফতাব উদ্দিন সরকার। উপস্থিত ছিলেন, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি খায়রুল আলম বাবুল, নীলফামারী পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি মোসফিকুর রহমান রিন্টুসহ আওয়ামীলীগের উপজেলা ও ইউনিয়ন কমিটির নেতৃবৃন্দ। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন ডোমার উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মনজুরুল হক চৌধুরী। এরপরে রাতে ডিমলা উপজেলা আওয়ামী লীগের সংবর্ধনা সভায় যোগ দেন প্রধান অতিথি।

রেজানুল/সা.এ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: