প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

এম. সুরুজ্জামান

শেরপুর প্রতিনিধি

শেরপুরে ৪ হাত ও ৪ পা বিশিষ্ট অদ্ভুত শিশুর জন্ম

   
প্রকাশিত: ৭:৩২ অপরাহ্ণ, ২২ জানুয়ারি ২০২৩

শেরপুরে চার হাত ও চার পা বিশিষ্ট এক অদ্ভুত নবজাতক শিশুর জন্ম হয়েছে। শুক্রবার জেলা সদর হাসপাতালে ওই শিশুর জন্ম দেন হোসনে আরা বেগম (২৬) নামে এক নারী। শনিবার (২১ জানুয়ারী) উন্নত চিকিৎসার জন্য ওই শিশুকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। প্রসুতি হোসনে আরা বেগম শ্রীবরদী উপজেলার গিলাগাছা গ্রামের রফিক মিয়ার স্ত্রী।

সুত্রে জানা গেছে, জেলার শ্রীবরদী উপজেলার বাসিন্দা রফিক ও হোসনে আরা বেগম দম্পতির একটি কন্যা সন্তান রয়েছে। অদ্ভুত এই শিশুটি তাদের দ্বিতীয় ছেলে সন্তান। অদ্ভুত শিশুর জন্ম দানের পর মা হোসনে আরা বেগম সুস্থ রয়েছেন। জেলা সদর হাসপাতালের চিকিৎসকরা জানান, তার শরীরের স্বাভাবিক গঠন ফিরিয়ে আনতে সার্জারীর প্রয়োজন রছেছে। তাই শনিবার সকালে ওই শিশুটিকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

এদিকে, এই ঘটনাটি চারদিকে ছড়িয়ে পড়লে অদ্ভুত ওই নবজাতককে দেখতে হাসপাতালে ভীড় জমান উৎসুক জনতা। নবজাতক দেখতে আসা আমিনা আক্তার বলেন, আমার এক বান্ধবীর কাছ থেকে শুনে শিশুটিকে দেখতে আসলাম। এসে দেখি অদ্ভুত এক শিশু। ৪ হাত ও ৪ পা আছে তার। আমি জীবনেও এমন শিশু দেখিনি।

এ ব্যাপারে শেরপুর জেলা সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল কর্মকর্তা ডা. খাইরুল কবির সুমন বলেন, গর্ভকালীন সময়ে চিকিৎসকের পরামর্শ ব্যতীত উচ্চ মাত্রার অ্যান্টিবায়োটিক ওষুধ সেবন অথবা পিল সেবন করলে এ ধরনের জন্মগত ত্রুটি হতে পারে। এছাড়া জিনগত কারণেও হতে পারে। তবে শিশুটিকে অস্ত্রোপাচার করলে স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে আসতে পারে। এখন পর্যন্ত প্রসুতি সুস্থ আছে বলেও জানান তিনি।

শাকিল/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: