তানভীন আহমেদ ফাহাদ

ডেস্ক এডিটর, বিডি২৪লাইভ

সবচেয়ে দীর্ঘ সময় রোজা হয় যেসব দেশে

২০ মে, ২০১৮ ১২:৪৭:৩৮

ছবি : ফাইল ফটো

পবিত্র মাহে রমজান মাস শুরু হয়েছে। এটি বিশ্বব্যাপী ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের সংযমের মাস। এই মাসে গোটা বিশ্বের মুসলিমগণ রোজা পালন করে থাকেন। রোজা পালন ইসলামের পাঁচটি স্তম্ভের মধ্যে তৃতীয় তম। তবে সব দেশে রোজার সেহরি ও ইফতারের সময় সমান নয়। কোনো দেশে কম কোনো দেশে বেশি। কোনো দেশে দেখা যায় ইফতারের মাত্র দু’ঘণ্টা পরেই সেহরি খেতে হয়। অর্থাৎ তাদের জন্য রোজা ২২ ঘণ্টার।

চলুন জেনে নিই, এমন কয়েকটি দেশ সম্পর্কে যে দেশগুলোতে ১৭-২২ ঘণ্টা পর্যন্ত রোজা রাখতে হয়-

তুরস্কে সাড়ে ১৭ ঘণ্টা: মুসলিম প্রধান দেশ তুরস্কে গরমকালে খুব কষ্ট করে রোজা রাখতে হয়। এ বছর সেহরির প্রায় সাড়ে ১৭ ঘণ্টা পর ইফতার করতে হচ্ছে দেশটির ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের।

কানাডায় ১৭ দশমিক ৭ ঘণ্টা: কানাডায় প্রায় ১০ লাখ মুসলমান বাস করে। সবচেয়ে বেশি মুসলমানের বাস টরন্টোতে। এবার কোনো কোনো দিন সেহরির প্রায় ১৮ ঘণ্টা পর ইফতারি খেতে হবে তাদেরকে।

ইংল্যান্ডে ১৮ ঘণ্টা ৫৫ মিনিট: ইংল্যান্ডে সেহরি থেকে ইফতারের সময়ের পার্থক্য প্রায় ২০ ঘণ্টা। রমজান শুরুর আগেই তাই মুসলিম কাউন্সিল অব ব্রিটেন নামের একটি সংগঠন এত দীর্ঘ সময়ের রোজা রাখার আগে ভেবে দেখতে বলেছে। সংগঠনটির আশঙ্কা, এত লম্বা সময় রোজা রাখলে অনেকে অসুস্থ হয়ে পড়তে পারেন। বিশেষ করে ডায়বেটিসে আক্রান্তদের প্রাণহানির শঙ্কাও দেখা দিতে পারে। ব্রিটেনে প্রায় ২৭ লাখ মুসলমান বসবাস করে।

জার্মানিতে ১৯ ঘণ্টা: রমজানে জার্মানির মুসলমানদেরও রোজা রাখতে ভীষণ কষ্ট হয়। এ বছর জার্মানিতে ধর্মপ্রাণ মুসলমানকে সেহরি খেতে হচ্ছে রাত সাড়ে ৩টায় আর ইফতার রাত ১০টায়।

আলাস্কায় ১৯ ঘণ্টা ৪৫ মিনিট: যুক্তরাষ্ট্রের আলাস্কায় ৩ হাজার মুসলমানের বাস। গ্রীষ্মকালে ভীষণ গরম থাকে সেখানে। তার ওপর কোনো কোনোদিন সূর্যোদয়ের ১৯ ঘণ্টা ৪৫ মিনিট পর সূর্য ডোবে। এত লম্বা সময় ধরে রোজা রাখা তাই অনেকের পক্ষেই সম্ভব হচ্ছে না।

সুইডেনে ২০ ঘণ্টা: খুব গরমের মধ্যে রোজা হলে সুইডেনের মুসলমানদেরও কষ্টের সীমা থাকে না! দেশটিতে ৫ লাখ মুসলমানের বসবাস। এদেশে এসব মুসলমানদের অনেক দিন সেহরির ২০ ঘণ্টা পর ইফতার খেতে হয়।

আইসল্যান্ডে ২২ ঘণ্টা: আইসল্যান্ড এমন একটি দেশ যেখানে রোজাদারদের ২২ ঘণ্টা রোজা রাখতে হয়। এদেশে মাত্র ৭৭০ জন মুসলমানের বাস। তবে ৭৭০ জনের মধ্যে যারা পবিত্র রমজান মাসে সিয়াম সাধনা করেন, তারা এক দিক থেকে বিশ্বের আর সমস্ত ধর্মপ্রাণ মুসলমানকে ছাড়িয়ে যান। আইসল্যান্ডে এবার সেহরি খেতে হচ্ছে রাত ২টায় আর ইফতার পরের দিন রাত ১২টায়। আইসল্যান্ডে বসবাসকারী মুসলমানদের দীর্ঘ ২২ ঘণ্টা রোজা রাখতে হচ্ছে।

বিডি২৪লাইভ/টিএএফ

বিডি টুয়েন্টিফোর লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: