প্রচ্ছদ / জাতীয় / বিস্তারিত

সম্পাদনা: আজাদ হোসেন

ডেস্ক এডিটর

সাত সকালেই সড়কে ঝরল ছয় প্রাণ

০৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ১৩:৩৯:২৯

ছবি: প্রতিনিধি

সড়কে মৃত্যুর মিছিল যেন থামছেই না। একে পর এক দুর্ঘটনা হয়েই চলেছে। ভোরে সূর্য এখনো ওঠেনি অথচ তার আগে শুনতে হল সড়কে প্রাণহানি ঘটনা।

আজ সোমবার (৩ সেপ্টেম্বর) খুব সকালে সিরাজগঞ্জ থেকে ঢাকায় ফিরছিলেন মো: জহিরুল ইসলাম (৪০)। পেশায় তিনি একজন প্রকৌশলী। তিনি তিনি মীর আকতার নামে একটি ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের সাইট ইঞ্জিনিয়ার। কিন্তু ঢাকায় আর ফেরা হলনা তারা। সাত সকালেই সড়কেই ঝড়ে গেল তার প্রাণ। সাথে তার দুই সঙ্গী।

স্থানীয়রা জানায়, সকালে মীর আখতার গ্রুপের (নম্বর- ঢাকা মেট্রো-ট-১১-৮৭৮৪) পিকআপে সিরাজগঞ্জ থেকে ঢাকায় ফিরছিলেন ওই তিনজন।পিকআপটি ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের সাভারের বলিয়ারপুর এসএন সিএনজি পাম্পের সামনে পৌঁছালে সামনে থেকে উল্টো পথে আসা দ্রুতগতির একটি ট্রাকের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে পিকআপভ্যানটি দুমড়েমুচড়ে যায় এবং ঘটনাস্থলেই মীর আখতার গ্রুপের প্রকৌশলী জহুরুল ইসলামসহ তিনজন মারা যান।

বিষয়টি নিশ্চিত করে সাভার মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আজগর আলী জানান, মির আখতার গ্রুপের ডাবল পিকআপে করে সিরাজগঞ্জ থেকে ঢাকায় ফিরছিলেন ওই তিন জন। তাদের বহনকারী ডাবল পিকআপটি ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের সাভারের বলিয়ারপুর এস এন সিএনজি পাম্পের সামনে পৌঁছলে সামনে থাকা দ্রুত গতির একটি ট্রাকের পিছনে ধাক্কা দিয়ে দুমড়ে মুচড়ে যায় ডাবল পিকআপটি। এ সময় ঘটনাস্থলেই ডাবল পিকআপে থাকা মির আখতার গ্রুপের প্রকৌশলী জহুরুল ইসলাম, ড্রাইভার খলিলুর রহমান ও ওয়াসার সার্ভেয়ার নুরন্নবী নিহত হন। দুর্ঘটনাকবলিত গাড়িটি থানায় আনা হয়েছে।

এদিকে নোয়াখালীতে দুর্ঘটনায় একই পরিবারের তিনজন নিহত হয়েছেন। নোয়াখালীর সেনবাগে অটোরিকশা ও পিকআপভ্যানের সংঘর্ষের তারা নিহত হয়। এতে আরও ছয়জন আহত হয়।

দুর্ঘটনাটি আজ সোমবার (৩ সেপ্টেম্বর) সকাল সাড়ে ৯টার দিকে ফেনী-নোয়াখালী মহাসড়কের সেনবাগ রাস্তার মাথা নামক স্থানে ঘটে। হাইওয়ে পুলিশের পরিদর্শক (তদন্ত) শাহজাহান খান বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

এবিষয়ে সেনবাগ সরকারি হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. রফিকুল ইসলাম জানান, সংঘর্ষে ঘটনাস্থলেই একজন নিহত হয়েছেন, হাসপাতালে নেয়ার পর আরও দুজনের মৃত্যু হয়।

উত্তম কুমার সরকার

ঢাকা: গত রোববার (২ সেপ্টেম্বর) বিকেলে মিরপুরের রাইনখোলা মোড়ে এলাকায় ঈগল পরিবহন বাসের চাপায় পিষ্ট হয়ে উত্তম কুমার সরকার (৩৪) নামে এক এসআই নিহত হন।

মুলত বাসটির বেপরোয়া গতি দেখে এসআই উত্তম কুমার রাইনখোলা মোড়ে স্পিডব্রেকারে এসে বাসটির সামনে মোটরসাইকেল দিয়ে ব্যারিকেড দেন। এ সময় চালক ক্ষিপ্ত হয়ে আরও বেপরোয়া হয়ে মোটরসাইকেলটিকে চাপা দিয়ে পালানোর চেষ্টা করে। প্রায় ১০০ গজ পর্যন্ত মোটরসাইকেলটিকে হেঁচড়ে নিয়ে যায় চালক। এতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়।

রংপুর: অটোরিকশাকে ওভারটেক করতে গিয়ে দুটি যাত্রীবাহী বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে চার মহিলা, এক শিশুসহ সাত জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন কমপক্ষে ৪০ জন। এ ঘটনায় জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে অতিরিক্ত ম্যাজিস্ট্রেট মো. রশিদুল মান্নাফ কবিরকে প্রধান করে তিন সদস্যবিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

চট্টগ্রাম: ঘুমিয়ে ছিলেন গেটম্যান। খোলা পেয়ে লেভেল ক্রসিংয়ে উঠে যায় বাস। এ সময় চলন্ত ট্রেন এসে পেছনে সজোরে ধাক্কা দেয়। এতে দুমড়ে-মুচড়ে যায় বাসটি। নিহত হয় বাসের দুই যাত্রী। গতকাল রাত সাড়ে ৩টার দিকে চট্টগ্রামের মিরসরাই উপজেলার বারৈয়ারহাটে ঢাকা-চট্টগ্রাম রেলপথের লেভেল ক্রসিংয়ে ঘটে এ ঘটনা। এতে প্রায় আড়াই ঘণ্টা বন্ধ থাকে চট্টগ্রামের সঙ্গে সব ট্রেন চলাচল। ফায়ার সার্ভিসের চেষ্টায় ভোর ৫টা ৫০ মিনিটে শুরু হয় ট্রেন চলাচল।

নারায়ণগঞ্জ: গতকাল সিদ্ধিরগঞ্জে বাসচাপায় এক নারী নিহত হয়েছেন। ঘটনাটি ঘটেছে গতকাল সকাল ৭টায় নারায়ণগঞ্জ-আদমজী-চিটাগাং রোড সড়কে সিদ্ধিরগঞ্জ পুল এলাকায়। পরে পুলিশ সকাল সাড়ে ৭টায় নিহত ওই নারীর লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠান।

বিডি২৪লাইভ/এএইচ

বিডি টুয়েন্টিফোর লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: