প্রচ্ছদ / রাজনীতি / বিস্তারিত

বিএনপি অফিসের স্কাইপে সংযোগ ‘ব্লক’ করলো কে?

২০ নভেম্বর, ২০১৮ ২১:১৫:০০

ছবি : প্রতীকী

বাংলাদেশের প্রধান বিরোধীদল বিএনপি অভিযোগ করেছে যে ঢাকার গুলশান এলাকায় তাদের প্রধান কার্যালয়ের ইন্টারনেট-ভিত্তিক ফোন সার্ভিস স্কাইপের সংযোগ ব্লক করে দেয়া হয়েছে। এই অফিসেই গত দুদিন ধরে স্কাইপে সংযোগের মাধ্যমে ৩০শে ডিসেম্বর অনুষ্ঠেয় নির্বাচনের জন্য দলের মনোনয়নপ্রার্থীদের সাক্ষাৎকার নিচ্ছিলেন লন্ডনে অবস্থানরত বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমান।

স্থানীয় কিছু ইন্টারনেট সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান বলছে, তারা স্কাইপে বন্ধ করে দেবার নোটিশ পেয়েছে বাংলাদেশের টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক কর্তৃপক্ষ বিটিআরসি-র কাছ থেকে। এরকম একটি চিঠির কপিও পাওয়া গেছে, কিন্তু বিটিআরসি এরকম নির্দেশ দেবার কথা অস্বীকার করেছে।

বিএনপি বলছে, তাদের নির্বাচনী প্রক্রিয়ায় বাধা দেয়ার উদ্দেশ্যই তাদের কার্যালয়ে ইন্টারনেট সংযোগ ব্লক করে দেয়া হয়েছে। প্রতিবেদনে এসব তথ্য তুলে ধরেছে বিবিসি বাংলা।

ওই প্রতিবেদনে আরও তুলে ধরা হয়- বিএনপির কারাভোগরত চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার ছেলে, এবং ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান স্কাইপের মাধ্যমে লন্ডন থেকে নির্বাচনে মনোনয়ন প্রত্যাশীদের সাক্ষাতকার নিচ্ছেন - এরকম খবর ও ছবি পত্রপত্রিকায় বেরুনোর পর বিষয়টি নিয়ে নির্বাচন কমিশনে অভিযোগ করেছিল ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ।

তবে নির্বাচন কমিশন জানায়, এ ব্যাপারে তাদের করার কিছু নেই।

ঢাকায় কয়েকটি ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডারের কাছ থেকে জানা গেছে, গতকাল সোমবার সকাল ১১ টা ১৭ মিনিটে তারা বিটিআরসির কাছ থেকে ইমেইল এর মাধ্যমে নোটিশটি পান।

এতে লেখা রয়েছে ‘কমিশনের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী স্কাইপে অ্যাপ ব্লক করতে হবে অনতিবিলম্বে।’ এবং ব্লক করার বিষয়টি মেইল করে বিটিআরসিকে নিশ্চিত করতেও প্রতিষ্ঠানগুলোকে বলা হয়েছে।

বিষয়টা নিয়ে বিটিআরসির জ্যেষ্ঠ সহকারী পরিচালক জাকির হোসেন খানের সাথে কথা হলে তিনি জানান, কোন নির্দেশনা দেয়া হয় নি, তবে ‘কারিগরি ত্রুটির কারণে কিছু স্থানে স্কাইপে বন্ধ রয়েছে।’

চিঠির শেষে বিটিআরসির সিস্টেম এবং সার্ভিস বিভাগের ইঞ্জিনিয়ার মাহফুজুল আলমের নাম রয়েছে। মি. খান বলছেন, এই নোটিশের বিষটি তারা তদন্ত করে দেখবেন।

বিএনপি গত রবিবার থেকে ভিডিও কলের অ্যাপ স্কাইপে ব্যবহার করে নির্বাচনে দলের মনোনয়ন প্রত্যাশীদের সাক্ষাতকার নিচ্ছিলো। তারেক রহমান লন্ডন থেকে স্কাইপের মাধ্যমে সাক্ষাতকার প্রক্রিয়ায় অংশ নিচ্ছিলেন। এ নিয়ে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের একটি প্রতিনিধি দল নির্বাচন কমিশনে অভিযোগ করে যে, দণ্ডপ্রাপ্ত পলাতক আসামী হিসাবে একজন ব্যক্তির নির্বাচনী প্রক্রিয়ায় অংশ নেয়া বেআইনি।

স্কাইপে বন্ধের পিছনে রাজনৈতিক কোন কারণ আছে কিনা - জানতে চাইলে বিটিআরসির জাকির হোসেন খান বলেন, কোন ‘ব্যারিয়ার’ (প্রতিবন্ধকতা) দেবার ইচ্ছে তাদের নেই। কমিশন টেলিযোগাযোগ আইন বলে তাদের কার্যক্রম পরিচালিত করে, কোন পার্টি বা দলকে হেয় করা বা যোগাযোগে বাধা দেবার কোন ব্যাপার এতে নেই, বলেন তিনি।

তবে বিএনপি অভিযোগ করছে, পুরো পার্টি অফিসেই ইন্টারনেট কানেকশনের ব্যাঘাত ঘটনো হয়েছে।

দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলছেন, ‘শুধু স্কাইপে না, জ্যামার দিয়ে ইন্টারনেট কানেকশন বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। একটা মেইলও করা যাচ্ছে না।’

মি. আলমগীর বলছিলেন, তাদের স্ট্যান্ডিং কমিটি আজ তৃতীয় দিনের মতো মনোনয়ন প্রত্যাশীদের সাক্ষাৎকারের কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন, আর বিভিন্নভাবে চেষ্টা করা হচ্ছে তারেক রহমানের মতামত নেয়ার।

তিনি আরও বলেন, নির্বাচনী কার্যক্রমে এভাবে বাধা দেয়া হলে কোন ভাবেই ‘লেভেল প্লেয়িং ফ্লিড’ তৈরি হবে না। দলটি নির্বাচন কমিশনে যাবেন বলেও জানিয়েছেন তিনি।

নির্বাচন কমিশনে একাধিকবার যোগাযোগ করা হলে এই বিষয়ে কোন মন্তব্য পাওয়া যায় নি।


বিডি২৪লাইভ/এইচকে

বিডি টুয়েন্টিফোর লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: