শামসুজ্জোহা বাবু

রাজশাহী প্রতিনিধি

রাজশাহীতে ২টি আসনে মনোনায়নপত্র সংগ্রহ করেছেন ৬ জন

২০ নভেম্বর, ২০১৮ ২১:৫৪:১৫

ছবি: ফাইল ফটো

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে রাজশাহীর দুটি সংসদীয় আসনের জন্য চারজন স্বতন্ত্র ও দুজন জন বিএনপির প্রার্থী মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন। এদের মধ্যে রাজশাহী-১ আসনে চার জন এবং রাজশাহী-৩ আসনের জন্য তুলেছেন অন্য দুইজন। জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা ও সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তার দপ্তর থেকে তারা নিজেদের জন্য মনোনয়নপত্র তুলেছেন।

রাজশাহী-১ (গোদাগাড়ী-তানোর) আসনের জন্য মনোনয়নপত্র তুলেছেন বিএনপি থেকে ব্যারিস্টার আমিনুল হক ও তার স্ত্রী আভাহক স্বতন্ত্র প্রার্থী অ্যাডভোকেট সালাহ উদ্দিন বিশ্বাস ও অধ্যাপক মুজিবুর রহমান। এদের মধ্যে অধ্যাপক মুজিবুর এই আসনের সাবেক সংসদ সদস্য। তিনি এখন জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় কমিটির নায়েবে আমির। সালাহ উদ্দিন বিশ্বাস এর আগে স্বতন্ত্রভাবে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করে পরাজিত হয়েছেন।

অন্যদিকে রাজশাহী-৩ (পবা-মোহনপুর) আসনের জন্য মনোনয়নপত্র তুলেছেন মাজিদুর রহমান ও আতিকুর রহমান। এদের মধ্যে মাজিদুর রহমান জামায়াতের নেতা। তিনি পবার হরিয়ান ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও কাটাখালি পৌরসভার মেয়র ছিলেন দীর্ঘদিন। আতিকুর রহমানের পরিচয় নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

জেলা প্রশাসনের সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মামনুন আহমেদ অনিক জানান, সোমবার থেকে সংসদ নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা ও সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয় থেকে মনোনয়নপত্র বিতরণ শুরু হয়েছে। এই নির্বাচনে জেলা প্রশাসক রিটার্নিং কর্মকর্তা এবং উপজেলা নির্বাহী অফিসাররা (ইউএনও) সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন।

প্রার্থীরা মনোনয়নপত্র বিতরণের প্রথম দিন চারজন ও দ্বিতীয় দিন দুজন সংগ্রহ করেছেন। এদের মধ্যে বিএনপি থেকে ব্যারিষ্টার আমিনুল হক ও তার স্ত্রী আভাহক ও সালাহ উদ্দিন বিশ্বাস ও মুজিবুর রহমান গোদাগাড়ীতে সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয় এবং অন্য দুজন রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয় থেকে মনোনয়পত্র তুলেছেন। তবে তারা কেউই জমা দেননি। আগামী ২৮ নভেম্বর পর্যন্ত প্রার্থীরা রিটার্নিং কর্মকর্তা ও সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তার থেকে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করে জমা দিতে পারবেন। প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত চলবে এই কার্যক্রম।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মামনুন আহমেদ অনিক আরও জানান, রিটার্নিং কর্মকর্তা আগামী ২ ডিসেম্বর প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র বাছাই করবেন। প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ দিন ৯ ডিসেম্বর। ওই দিনই প্রতীক বরাদ্দ করা হবে। প্রার্থীরা ১১ ডিসেম্বর থেকে প্রচারণা শুরু করতে পারবেন। সারাদেশে একযোগে ভোট গ্রহণ করা হবে ৩০ ডিসেম্বর।

বিডি২৪লাইভ/এমকে

বিডি টুয়েন্টিফোর লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: