প্রচ্ছদ / বিনোদন / বিস্তারিত

সম্পাদনা: আমিনুল ইসলাম রোমান

ডেস্ক এডিটর

সালমানের বাসায় ভাঙচুর নিয়ে মুখ খুললেন জেসিয়া

১৭ জানুয়ারি, ২০১৯ ২০:২০:৪১

ছবি : ইন্টারনেট

মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ ২০১৭ বিজয়ী জেসিয়া ও ইউটিউবার সালমান মুক্তাদির দীর্ঘদিন প্রেম করছেন। গেল বছর একটি রেডিও অনুষ্ঠানে দুজনেই প্রেমের কথা স্বীকার করেন। সেখানে জেসিয়াকে প্রকাশ্যে চুমু খান সালমান।

সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ফেসবুকে এ নিয়ে দারুণ আলোচনা-সমালোচনা হয়। ফেসবুকে নানা সময়ে তাদের কর্মকাণ্ড বিতর্কিতও হয়ে আসছে।

এবার নতুন বিতর্কের জন্মদিলেন জেসিয়া। সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে একটি ভিডিও। যেখানে দেখা যাচ্ছে, জেসিয়া ইসলাম মাঝরাতে সালমান মুক্তাদিরের বাড়িতে যান। এসময় নিরাপত্তারক্ষীদের দরজা খুলতে বললে তারা জেসিয়ার কথা শুনে না।

এরপরই জোরে জোরে দরজা পেটাতে শুরু করে সাবেকে এই ‘মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ’। এক পর্যায়ে নিচে নেমে আসে সালমানের মা। তাকে দরজা খুলতে বলা হলে তিনিও সেটি খুলেন না। এরপর ইট দিয়ে সালমানের বাসার গেট ভাঙচুর করা শুরু করেন জেসিয়া। পাশাপাশি অশালীন ভাষায় গালিগালাজও করতে থাকেন।

মধ্যরাতে কেন তিনি গিয়েছিলেন ওই বাড়িতে? কেনই বা তাঁকে ঢুকতে দেওয়া হয়নি? এ বিষয়ে জানতে চাইলে জেসিয়া ইসলাম বলেন, ‘আমাদের প্রেমের সম্পর্কের বয়স দেড় বছরের। কিছুদিন ধরে সে আমার কাছে কিছু বিষয় লুকাচ্ছিল। আর সেদিন আমার সঙ্গে সালমান একটা বিষয়ে মিথ্যা বলে, বিষয়টি বুঝতে পেরে আমি ওর বাসায় যেতে বাধ্য হই। সে ভাবতে পারেনি, এত রাতে আমি যাব। কিন্তু আমার আর কোনো উপায় ছিল না।’

বাড়ির প্রধান ফটকে ধাক্কা ও ইট ছুড়ে কাচ ভাঙার কারণ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে জেসিয়া বলেন, ‘আমি তো শুরুতে এমনটা করিনি। আমি যখন সালমানের বাড়ি যাই তখন রাত দুইটার কাছাকাছি। প্রথমে কলবেল দিয়েছিলাম। এরপর ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করি। কোনোভাবেই কেউ আমাকে ভেতরে ঢুকতে দেয়নি। প্রধান ফটক খোলার অনুরোধ করলেও গ্যারেজে থাকা তাঁর পরিবারের কেউ তা করেনি। সালমান ও তাঁর পরিবারের লোকজন আমার ধৈর্য্যের বাঁধ ভাঙতে বাধ্য করে। আমি ভেবেছিলাম, জোরে নক করলে হয়তো তারা গেট খুলবে। আমাকে দু্ই ঘণ্টার মতো বাইরে দাঁড় করিয়ে রাখে।’

মিরপুর ডিওএইচএসের বাড়িতে গভীর রাতে গিয়ে ভাঙচুর ও চিৎকার করার কারণে জেসিয়ার মায়ের সঙ্গে কথা বলেন সালমান মুক্তাদিরের মা। জেসিয়া জানান, সালমান আমার বিশ্বাসের সঙ্গে প্রতারণা করেছে। আমার সম্পর্ককে অসম্মান করেছে, অমর্যাদা দিয়েছে। আমার মা–ও তাই জানিয়ে দিয়েছে।

সালমান মুক্তাদিরের সঙ্গে দেড় বছরের প্রেমের সম্পর্ক একটা বড় শিক্ষা বলে মনে করছেন জেসিয়া। তিনি বলেন, ‘এই অধ্যায় আপাতত বন্ধ। আমি এখন থেকে কাজ নিয়ে থাকতে চাই। আমার অনেক কাজের সুযোগ থাকলেও করা হয়নি। আমি এখন কাজ আর পড়াশোনায় মন দেব। নিজেকে সময় দেব। নিজেকে ভালোবাসতে শিখব।’

এ বিষয়ে সালমান মুক্তাদিরের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বিডি২৪লাইভকে বলেন, ‘আমাদের মধ্যে প্রায় প্রতিদিনই এ রকম ঘটনা হয়। আমি জেসিয়াকে আমার সর্বোচ্চ চেষ্টা করি তাকে খুশি রাখার। যেহেতু আমার অতীত খারাপ তাই সে এখনও ভাবে যে আমি আগের মতোই আছি।’

তিনি আরও বলেন, ‘ও (জেসিয়া) ঠিক কি কারণে এমন সিনক্রিয়েট করলো এটা আমি আসলে জানি না। যখন এ ঘটনা টা ঘটেছে তখন আমি ঘুমিয়েছিলাম। ঘুম থেকে উঠে দেখি যা হওয়ার তা হয়ে গেছে। এরপর তেমন বেশি কথা হয়নি ওর সাথে। আর বিষয়টি তেমন বড় ভাবে নেয়ার কিছুই নেই।’

প্রসঙ্গত, এর আগে মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ জেসিয়া ইসলামের ফেসবুকের একটি স্ট্যাটাস সম্প্রতি ভাইরাল হয়েছিল। যেখানে তিনি অভিনেতা সালমান মুক্তাদিরের বিরুদ্ধে কিছু অভিযোগ করেছিলেন। একই সঙ্গে তার সঙ্গে সালমান মুক্তাদিরের চ্যাটিংয়ের বেশ কিছু স্ক্রিন শটও ফেসবুকে পোস্ট করেছিলেন জেসিয়া।

উল্লেখ্য, ২০১৭ সালে অনুষ্ঠিত ‘মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ’ সুন্দরী প্রতিযোগিতার বিজয়ী হয়ে তারকাখ্যাতি লাভ করেন জেসিয়া ইসলাম। আর ইউটিউবার হিসেবে জনপ্রিয় সালমান মুক্তাদির। বেশি কিছু নাটক-টেলিছবিতেও কাজ করেছেন তিনি। দেখা গেছে বিজ্ঞাপনেও।

বিডি২৪লাইভ/এআইআর

বিডি টুয়েন্টিফোর লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: