মনজুরুল ইসলাম

ময়মনসিংহ প্রতিনিধি

দুই সাংসদের বিরুদ্ধে নির্বাচনী আচরণ বিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ

২১ মার্চ, ২০১৯ ১৯:১৫:০০

ছবি: প্রতিনিধি

ময়মনসিংহের নান্দাইল ও ত্রিশাল উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আচারণ বিধি লঙ্ঘনের অভিযোগে দুই সংসদ সদস্যের বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২১ মার্চ) বিকালে ময়মনসিংহ প্রেসক্লাবে নান্দাইল উপজেলা আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকার প্রার্থী আব্দুল মালেক চৌধুরী স্বপন সাংসদ আনোয়ারুল আবেদীন খান তুহিনের বিরুদ্ধে স্বতন্ত্র প্রার্থী হাসান মাহমুদ জুয়েলের পক্ষে আনারস প্রতীকে প্রচারণার অভিযোগ করেন।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে আব্দুল মালেক চৌধুরী স্বপন বলেন, চতুর্থ ধাপের উপজেলা পরিষদের নির্বাচনে তফসিল ঘোষণার পর থেকে নান্দাইলের এমপি আনোয়ারুল আবেদীন খান তুহিন আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী হাসান মাহমুদ জুয়েলকে প্রকাশ্যে সমর্থন করে বিভিন্ন সভা-সমাবেশ করছেন। এ বিষয়ে প্রমাণসহ সংশ্লিষ্ট সকল মহলকে লিখিতভাবে জানালেও কোনো সুরাহা হয়নি।

সরকার যখন উপজেলা নির্বাচন অবাধ সুষ্ঠু এবং নিরপেক্ষ করতে বদ্ধপরিকর তখন এমপি সংঘাতময় পরিস্থিতি সৃষ্টি করছেন।

তিনি আরও বলেন, ৩১ জন প্রিজাইডিং অফিসার মনমত দেবার চেষ্টা করছেন এমপি। এ বিষয়েও নির্বাচন কমিশন বরাবর অভিযোগ করার প্রস্তুতি নিচ্ছি।

সংবাদ সম্মেলনে চন্ডীপাশা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এমদাদুল হক ভুইয়া, উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক শহীদুল্লাহ শহীদ উপস্থিত ছিলেন।

তবে এমন অভিযোগ অস্বীকার করে আনোয়ারুল আবেদীন খান তুহিন এমপি বলেন, আমি আমার রুটিন ওয়ার্ক করছি। প্রকাশ্যে কোথাও নির্বাচনী প্রচারণা করছিনা। আব্দুল মালেক চৌধুরী স্বপনের জনমত নেই বলেই এখন মনগড়া কথা বলছেন।

অপরদিকে দুপুরে ত্রিশাল উপজেলা আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয়ে স্থানীয় সাংসদ হাফেজ রুহুল আমিন মাদানীর বিরুদ্ধে নির্বাচনী আচারন বিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ করেন স্বতন্ত্র প্রার্থী আব্দুল মতিন সরকার।

তিনি বলেন, সাংসদ রুহুল আমিন মাদানী আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী ইকবাল হোসেনের সঙ্গে প্রচার-প্রচারণায় প্রতিনিয়ত যোগ দিচ্ছেন। আমার নেতা-কর্মীদেরও হুমকী-দমকী দিচ্ছেন। এ রকম নির্বাচনী অবস্থা চলতে থাকলে আমি ও আমার সমর্থকরা পিছু হটব না।

যে কোন পরিস্থিতি মোকাবেলা করার জন্য আমার যথেষ্ট শক্তি সামর্থ্য রয়েছে। উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে এ বিষয়ে লিখিত ভাবে জানিয়েও কোন সুরাহা হচ্ছেনা বলেও তিনি জানান।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা ফজলে রাব্বী মিয়া, শোভা মিয়া আকন্দ, মঠবাড়ি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল কদ্দুস প্রমূখ।

আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকার প্রার্থী মো.ইকবাল হোসেন বলেন, আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে নির্বাচন করে আব্দুল মতিন সরকার তার জনপ্রিয়তা হারিয়েছে। তাই সে পরাজয়ের ভয়ে নানা কথা বলছেন। আমারা নিয়ম-নীতি মেনেই নির্বাচন পরিচালনা করে যাচ্ছি।

বিডি২৪লাইভ/এজে

বিডি টুয়েন্টিফোর লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: