ফেইসবুক আদলে “মাইমিটবুক” তৈরি করলেন রাউজানের সন্তান

প্রকাশিত: ১০:২৯ অপরাহ্ণ, ১৯ মার্চ ২০১৫

গাজী জয়নাল আবেদীন,
চট্টগ্রাম প্রতিনিধি:

বর্তমান সময়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ছাড়া জীবন কল্পনা করা যায় না। তরুণ প্রজন্ম হতে শুরু করে প্রবীণরা, শিক্ষার্থী হতে শিক্ষকরা, সমাজকর্মী হতে কর্মকর্তা, রাজনৈতিক কর্মী হতে নেতা/নেত্রী, লেখক-লেখিকা, পাঠক-পাঠিকা, সংবাদিক হতে সম্পাদক সকলেই সোশ্যাল মিডিয়ার জোয়ারে ভাসছে। ফেইসবুক, টুইটার, গুগোল প্লাস, হোয়াটস অ্যাপ আরো কত কি। এসব সোশ্যাল মিডিয়ার বদৌলতে সৃষ্টি হয়েছিল আরব বসন্ত, সংগঠিত হয়েছিল গণজাগরণ মঞ্চ। সৃষ্টি হচ্ছে নানারকম সমাজিক কর্ম, সহযোগীতা, গড়ে উঠছে বৈচিত্রময় সম্পর্ক, থাকছেনা দূরত্বের বাধা।

সোশ্যাল মিডিয়া গুলোর মধ্যে ফেইসবুক বাংলাদেশে জনপ্রিয়তার শীর্ষে। এই ফেইসবুকের আদলে আরো বাড়তি সুযোগ সুবিধা দিয়ে নতুন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম “মাইমিটবুক ডটকম” বানালেন ওমর ফারুক নামে রাউজানের এক তরুন।

তার বাড়ি চট্টগ্রামের রাউজান উপজেলার পাহাড়তলী ইউনিয়নের শেখপাড়া গ্রামে। বর্তমানে তিনি ঢাকায় হিয়ারিং সেন্টারের ব্যবসা করছেন। একই সাথে আউটসোসিং ও ব্লগিং করে থাকেন নিয়মিত। গত কয়েক বছর আগে তিনি ‘অল ইন ওয়ান টুলবার’ নামে একটি টুলবারও তৈরি করেছিলেন যা ব্যবহারকারীদের কাছে বেশ জনপ্রিয়তাও পায়।

স্বপ্নবাজ তরুণ ওমর ফারুক এখন হতে তিন বছর পূর্বে তার জন্মদিনে ফেইসবুকের মাধ্যমে দাওয়াত দিতে গিয়ে এমন একটি সোশ্যাল সাইট তৈরি করার জণ্য স্বপ্নের বীজ বুনেন। অবশেষে গত ১৫ মার্চ তার জন্মদিনে দীর্ঘ তিন বছর অক্লান্ত পরিশ্রমের মাধ্যমে তার লালিত স্বপ্নকে বাস্তবে রূপ দেন। তার গর্ভধারিণী মাকে উৎসর্গ করার মধ্য দিয়ে আনুষ্টানিকভাবে উদ্বোধন করেন “মাইমিটবুক ডটকম”(http://mymeetbook.com/)

সাইটটির প্রতিষ্ঠাতা ওমর ফারুক বিডি টুয়েন্টিফোর লাইভকে জানান, সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইটটি ফেইসবুকের মতোই ব্যবহার করতে পারবেন আগ্রহীরা। এতে সোশ্যাল জায়ান্টের আদলে রয়েছে স্ট্যাটাস, লাইক ও মন্তব্য করার সুবিধা।শুধু তাই নয়, এর মাধ্যমে ফ্রেন্ডদের সাথে ছবি ও ভিডিও শেয়ার করার পাশাপাশি সর্বোচ্চ ৫০ মেগাবাইটের ফাইলও শেয়ার করা যাবে। যথারীতি পেইজ ও প্রোফাইল ভেরিফাইড সুবিধাও এতে জুড়ে দেয়া হয়েছে।

ব্যবহারকারী এখানে গেম খেলতে পারবেন এবং পছন্দের গেম আপলোড দিতে পারবে। পেজ এবং প্রোফাইলকে নিজের মত ডিজাইন করা যাবে। ভিডিও টিউটোরিয়ল সুবিধাও রয়েছে। এছাড়াও ব্যবহারকারী অনন্যা সোশ্যাল আই.ডি দিয়ে লগিন করতে পারবেন (ফেসবুক, টুইটার, গুগলপ্লাস) ।

মাইমিটবুকে আরও আছে যে কোন প্রতিষ্ঠানের পণ্য প্রচারণার ব্যবস্থা। আছে লাইভ চ্যাট ও ম্যাসেজ আদান-প্রদানের ব্যবস্থাও। বাংলা ও ইংরেজি দুইটি ভাষায় এটি ব্যবহার করা যাবে।

তিনি আরো জানান, সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইট অনেক আছে, কিন্তু এ দেশের মানুষের চাহিদা পূরণের মতো সাইট একটাও নাই। তাই মাইমিটবুক তৈরির উদ্যোগ নিই।

বর্তমানে সাইটটি বেটা সংস্করণ অবস্থায় আছে। শিগগিরই এতে আরও বেশ কিছু নতুন ফিচার যোগ করা হবে। মাইমিটবুক ডটকমের ডিজাইনসহ অন্যান্য যাবতীয় কাজ একা একাই করেছি।শুধু তাই নয়, সাইট তৈরির যাবতীয় খরচও এককভাবে আমি নিজে বহন করেছি
মূলত বিজ্ঞাপন থেকে আয় করতে চান তিনি। যেমনটা ফেইসবুক বিজ্ঞাপন দিয়ে আয় করে। এ জন্য ইতিমধ্যে সাইটটিতে বিজ্ঞাপন দেয়ার ফিচার যোগ করা হয়েছে।

সঠিক প্রচারণা ও সবার সহযোগীতা পেলে মাইমিটবুক ডটকম দেশে জনপ্রিয় হয়ে উঠবে বলেও আশা প্রকাশ করেন তিনি। তার এই সফলাতার রাউজানের বিভিন্ন সামাজিক সংগঠন অঅভিনন্দন জানান। এদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য, প্রথম বসন্ত, রাউজান কাজী নজরুল সাহিত্য পরিষদ, পাহাড়তলী নজরুল ক্লাব, উরকিচর জনতা সংঘ, রাউজান রাইটার্স ক্লাব প্রমুখ।

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: