প্রচ্ছদ / বিনোদন / বিস্তারিত

আমাদের মিডিয়ার সাপোর্ট দরকার: শওকত আলী ইমন

০৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৫ ০০:৫৯:১৭

আরেফিন সোহাগ,
বিনোদন প্রতিবেদক:
এক সন্ধ্যায় হঠাৎ করে পৌঁছে গেলাম বাংলাদেশের বিশিষ্ট সংগীত পরিচালক ও গায়ক শওকত আলী ইমনের অফিসে। কথপোকথনের এক পর্যায়ে তিনি বলে ফেললেন অনেক কথা। আমিও তার কথা শুনে থমকে গেলাম। বললাম একটা ইন্টারভিউ দিবেন? যে কথা সেই কাজ শুরু হল আমাদের মধ্যে বর্তমান গান ও শিল্পীদের নিয়ে কথা।

শওকত আলী ইমন নিজের সর্ম্পকে বলেন- আমি কাজ তো নিজেকে প্রচার করার জন্য করিনা। অনেকে কাজ করে বা করছে জানিনা তারা কিভাবে কাজ করে। তবে আমি নিজের মতো করে কাজ করি নিজেকে মেলে ধরতে না সংগীতটাকে বাঁচিয়ে রাখতে কাজ করি। আমি দু’দশক ধরে কাজ করি, ৪শ ছবির কাজ করেছি আমি।

তিনি বলেন, আমি নিজেকে আপডেট করার চেষ্টা করি। ৯৫-এ রুটি ছবির কাজ দিয়ে শুরু করি। দীর্ঘ সময়ের কাজের অভিজ্ঞতা থেকে বলতে পারি নিষ্ঠার সাথে কাজ করলে ২০বছর কেন সারা জীবন কাজ করা সম্ভব। আসলে এই ভাবে আমাদের দেশের সংগীতটাকে নষ্ট করে ফেলছে। সঙ্গীত না জানলে তার মর্যাদা বুঝবে কি ভাবে?

তিনি নতুনদের উদ্দেশ্যে বলেন- নতুন যারা কাজ করছে তাদের নিয়ে ভয় হয় যে তারা ২০ বছর দূরে থাক আগামী ৫বছর টিকে থাকতে পারবে কি-না। এরা হঠাৎ করে আসে আবার হঠাৎ করেই নাই হয়ে যায়। সংগীত হচ্ছে গুরু মুখী বিদ্যা, গুরু না চিনলে সংগীতে সাধন হবে না। এরা গুরু বোঝেওনা, চিনেও না। একটা কম্পিউটার নিয়ে বসে কিছু মিউজিক ডাউনলোড করে নিজের গান তুলে ধরছে।

পাইরেসি সম্পর্কে বলেন- সব থেকে বড় ব্যাপার হচ্ছে পাইরেসি। এই সম্পর্কে কিছু বলার নাই, এটা আমাদের দেশসহ সারা বিশ্বে প্রবাহিত হচ্ছে। এখন তো আর পাইরেসি হয় না। এখন হয় ডিজিটাল পাইরেসি, একটা গান সিডি করলাম ১সপ্তাহ পরে সেটা পেইনড্রাইভে পেয়ে যাবেন। এই কারণে গানের চেষ্টা কমে যাচ্ছে।

দেশের বাইরে গান করতে যাওয়া প্রসঙ্গে তিনি বলেন- দেশের বাইরে গান করলে আমাদের মান ক্ষুন্ন হচ্ছে যেমন তেমন আবার আমাদের চাহিদাও বাড়ছে। আমিও কোলকাতার সিনেমায় কাজ করেছি। কোয়ালিটির ক্ষেত্রে কোলকাতা এগিয়ে অনেকটাই। বাংলাদেশের মাটি হচ্ছে সংগীতের মাটি। সেটাকে মাথায় রেখে আমাদের কাজ করতে হবে।

বর্তমান কি করা উচিত- আমদের মিডিয়ার সাপোর্ট সব সময় দরকার। দেশে তেমন কোন গানের চ্যানেল নাই। কয়েকটা আছে তারা নিজের পছন্দ মতগান প্লে করে। এখন সবাই নিজের প্রয়োজনে গান বাজনা করছে। আমি বলবো ভাই তোমরা দেশের জন্য গান করো। তিনি বলেন, আমার মনে হয় আমরা শিল্পীরা সবাই একত্রে মিলিত হয়ে যদি কাজ করি তাহলে সম্ভব এই বাংলার গান গুলিকে বাঁচিয়ে রাখা। না হলে একদিন আমাদের গান হারিয়ে যাবে।

শওকত আলী ইমন পাঠকদের উদ্দেশ্যে বলেন- আপনারা বাংলাগান শুনুন এবং বাংলাদেশের গান শুনুন। আপনারা পারেন একটি বিল্পব ঘটাতে। সবাই ভালকে সার্পোট দিবেন এবং ভালোকিছুর পাশে থাকবেন।

বিডি টুয়েন্টিফোর লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: