প্রচ্ছদ / রাজনীতি / বিস্তারিত

কখন যে গণজাগরণ উঠবে তা বলা মুশকিল: দুদু

প্রকাশিত: ০৭:০৬ অপরাহ্ণ, ১৭ এপ্রিল ২০১৯

ছবি: ইন্টারনেট থেকে

দীর্ঘ ৭ বছর ধরে নিখোঁজ বিএনপির সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক এম ইলিয়াস আলীর সন্ধান চেয়ে দলটির ভাইস চেয়ারম্যান ও কৃষক দ‌লের আহবায়ক শামসুজ্জাম‌ান দুদু প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উদ্দেশে বলছেন, প্রধানমন্ত্রীর কাছে আমি সব সময় দাবিও করি তার সমালোচনাও করি। আজ কোন দাবিও করব না তার কোন সমালোচনা করব না। শুধু একটি অনুরোধ করব। আপনিতো ভয়ংকর ক্ষতিগ্রস্ত একটি পরিবারের সদস্য। আপনিতো হৃদয় দিয়ে অনুভব করতে পারেন পরিবারে একটি সদস্য না থাকলে, মৃত্যু হলে, পরিবারের অন্য সদস্যদের কত কষ্ট এবং বেদনা।

তিনি বলেন, এটা আর কেউ না জানুক আপনি জানেন। ইলিয়াস কে ফিরে পাবার আশায় তার স্ত্রী সন্তানরা আপনার কাছে ছুটে গিয়েছিল। তাদের এই যাওয়াটা দেশবাসীর অনেকেই ভালো মনে করেনি। কারণ দেশবাসীর সবাই জানে কোথা থেকে কি হয়েছিল। তার পরেও তারা আপনার কাছে গিয়েছিল এবং আপনি মমতাময়ী মায়ের মত বলেছিলেন ইলিয়াস আলী শীঘ্রই বাসায় ফিরে যাবে। কিন্তু সাত বছর হয়ে গেল ইলিয়াস আলী ফিরে আসলো না। আপনি কথা দিয়ে কথা রাখলেন না।

বুধবার (১৭ এপ্রিল) দুপুরে ঢাকা রি‌পোটার্স ইউ‌নি‌টির সাগর রুনী মিলনায়ত‌নে এম ই‌লিয়াস আলী মু‌ক্তি ছাত্র সংগ্রাম প‌রিষ‌দের উদ্যোগে বেগম খা‌লেদা জিয়ার নিঃশর্ত মু‌ক্তি ও দলটির সাবেক সাংগঠ‌নিক সম্পাদক নি‌খোজ এম ইলিয়াস আলীর সন্ধা‌নের দা‌বি‌তে এক প্র‌তিবাদ সভায় তি‌নি এসব কথা ব‌লেন।

শামসুজ্জামান দুদু বলেন, ইলিয়াস আলীকে পাঠিয়ে দেন আমরা কিছু মনে করব না। কারণ তার পরিবার তো তাকে পাবে। আমরা সহকর্মী পাব। আর যদি না দেন, আপনাকে হুমকি দিচ্ছি না। পরিস্থিতি সবসময় এরকম থাকবে না। ইসলাম য‌দি পৃথিবীর শান্তি প্রিয় ধর্ম হয়ে থাকে, পৃথিবীর মুক্তির সনদ হয়ে থাকে, তাহলে অন্যায়কারী হিসেবে, নির্যাতনকারী হিসাবে, গুমকারী হিসেবে পতন আপনার হবেই। তখন ইলিয়াস আলী জীবিত না মৃত আমাদের কাছে আসবে সেটা বড় কথা না। আমাদের কাছে বড় কথা হলো আপনার কৈফিয়ত দিতে হবে। সেজন্য বলি আমাদের বা ইলিয়াস আলীর সন্তানদের জন্য না। আপনার নিজের স্বার্থে আপনার দলের স্বার্থে আপনার সহকর্মীদের স্বার্থে ইলিয়াস আলীকে ফেরত দেন। তাহলে বাংলাদেশের রাজনীতিতে একটি দৃষ্টান্ত হয়ে থাকবেন।

নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে বিএনপির এই নেতা বলেন, হতাশ হওয়ার কিছুই নেই। ছাত্ররা ছাত্রদের জায়গা থেকে কাজ করছে। যুবকরা যুবকদের জায়গা থেকে কাজ করছে। কৃষক দল, জাতীয়তাবাদী দল যে যার জায়গা থেকে কাজ করছে। কখন যে কোন জায়গা থেকে গণজাগরণ উঠবে তা বলা মুশকিল। গণজাগরণ উঠ‌লেই দেশে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠিত হবে। বেগম খালেদা জিয়া মুক্তি পাবে এবং তারেক রহমান দেশে ফিরবেন।

‌প্র‌তিবাদ সভায় আরও উপ‌স্থিত ছি‌লেন নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, বিএনপি’র ভাইস চেয়ারম্যান বেগম সেলিমা রহমান, চেয়ারপারসনে আমাউল্লাহ আমান, হাবিবুর রহমান হাবিব, আবুল খায়ের ভূইয়া, যুগ্ন মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, সাংগঠনিক সম্পাদক রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু, ডা: সাখাওয়াত হোসেন জীবন, প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানি প্রমুখ।

বিডি২৪লাইভ/এইচকে

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: