প্রচ্ছদ / বিনোদন / বিস্তারিত

ব্রিটিশ শিশুর কণ্ঠে কুমার বিশ্বজিতের গান ভাইরাল (ভিডিও)

প্রকাশিত: ০১:৫৮ অপরাহ্ণ, ১৮ এপ্রিল ২০১৯

ছবি: সংগৃহীত

লক্ষ্য কোটি তরুণ-তরুণীর হৃদয়ে জায়গা করে নেওয়া কিংবদন্তি কণ্ঠশিল্পী কুমার বিশ্বজিৎ। যিনি আধুনিক, ক্লাসিক্যাল ও লোকগীতিসহ সব ধরনের গানের এক উজ্জ্বল নক্ষত্র। তার কণ্ঠে মিষ্টি কথার রোমান্টিক গানগুলো এখনও সদ্য প্রেমিক হয়ে উঠা যুবকের মুখে অহরহ শুনতে পাওয়া যায়। বিংশ শতাব্দির এই যুগে এসেও প্রেমিক-প্রেমিকার ঠোঁটে এখনও জনপ্রিয় এই গায়কের গান।

সম্প্রতি পহেলা বৈশাখে কিংবদন্তি এই গায়কের একটি গান গেয়ে রীতিমত ভাইরাল এক ব্রিটিশ ছেলে। বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ৯ বছর বয়সী এই ব্রিটিশ নাগরিকের নাম রিস যিনি যুক্তরাজ্যে বসবাস করেন। ছেলেটি আর দশটা মানুষের মত স্বাভাবিক নন, সে একজন স্পেশাল চাইল্ড। তাছাড়া দেশের বাইরে বড় হয়ে উঠাতে বাংলাটা ঠিকমত বলতে পারেন না। তারপরও কিংবদন্তি গায়ক কুমার বিশ্বজিতের জনপ্রিয় গান ‘একতারা বাজাইওনা না, দুতারা বাজাইওনা’ গানটি গান ৯ বছর বয়সী রিস। সেই ভিডিওটি রিসের মা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রকাশ করলে সেটি রীতিমত ছড়িয়ে পড়ে। সেখানে বিদেশি হয়েও বাঙালি সাজে গান গাওয়ার সাথে সাথে নাচতেও দেখা গিয়েছে তাকে।

ভিডিও পোস্ট করে রিসের মা শাহমিকা আগুন লিখেন, শুভ নববর্ষ। আমার ছেলের গানটি খুব পছন্দ কিন্তু হয়ত ওর অটিজমের কারণে মূল গানটির কথাগুলোর পেছনের যে আসল মেসেজ তা ও বুঝতে পারছিল না। যেমন, তোমরা একতারা বাজাইওনা, তোমরা দোতারা বাজাইওনা। রিস বাংলা বলতে পারে না। অর্থ বোঝানোর পর ও বলে ‘But I want to do everything mummy’ একটু আপসেট হয়। তাই রিস যা করতে চায় সেরকম করে গাওয়া।

সেখানে তিনি বলেন, গুগল খুঁজে কুমার বিশ্বজিতের ছবি বের করে শুধু তার দিকে তাকিয়ে থাকে। রিসকে এর কারণ জিজ্ঞেস করা হলে সে বলে, সে কুমার বিশ্বজিতকে অনেক পছন্দ করে, ভালোবাসে। তার গান রিসের অনেক পছন্দ।

রিসের মা আরও জানান, রিস আমার কাছ থেকে গানটি শুনে আধো আধো বাংলায় গানটি গেয়েছে।

ভিডিওটি নজরে আসে এই গানের গায়ক কুমার বিশ্বজিতের। এই বিষয়ে তার সাথে যোগাযোগ করা হলে বিডি২৪লাইভকে কুমার বিশ্বজিৎ বলেন, বিদেশি হয়েও বাংলা গানের প্রতি রিসের এই টান দেখে আমি আকৃষ্ট হয়েছি। সে একজন ব্রিটিশ বাঙালি, একজন স্পেশাল চাইল্ড। আমি ভিডিওটি দেখেছি। আমার ও আমার গানের প্রতি এমন ভালোবাসা দেখে সত্যি আমি মুগ্ধ। স্রষ্টার কাছে কৃতজ্ঞতা জানাই এর জন্য। যদি তার সাথে দেখা করার সুযোগ হয় আমি দেখা করবো। আমার অনেক ভালো লাগবে তার সাথে দেখা করতে পারলে। আর আমি এই শিশুটির জন্য অনেক আশীর্বাদ করি যেন সুস্থ ও সুন্দর থাকে সবসময়।

ভাইরাল হওয়া সেই ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন

বিডি২৪লাইভ/আইএন/টিএএফ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: